ষড়যন্ত্রকারীরা আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করতে আবারও পাকিস্তানিদের হাতে ক্ষমতা তোলে দিতে চায় : কামরান

প্রকাশিত: ৭:০৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৫, ২০১৭

ষড়যন্ত্রকারীরা আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করতে আবারও পাকিস্তানিদের হাতে ক্ষমতা তোলে দিতে চায় : কামরান

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২ তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সিলেট সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগের উদ্যেগে দিন ব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচী পালিত হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত সিলেট সদর উপজেলার টুকের বাজারের তেমুখি এলাকার শরিফ সেন্টারে দিন  ব্যাপী কর্মসূচী পালিত হয়।

সকালে ১১টায় স্বেচ্ছায় রক্তাদান কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে দিন ব্যাপী আয়োজনের শুরু হয়ে। কর্মসূচীর মধ্যে ছিলো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মহান মুক্তিযোদ্ধ নিয়ে তথ্য চিত্র প্রদর্শন, খতমে কোরআন, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল এবং জাতীয় মহান শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা।

সভায় সিলেট জেলা পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের সদস্য শাহনুরের সভাপতিত্বে ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য এবং সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সদস্য অ্যাডভোকেট নূরে আলম সিরাজীর পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য ও মহানগরের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কামরান বলেন, আগস্ট মাস শোকের মাস। এ মাসেই শহীদ হয়েছিলেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি মুক্তিযোদ্ধের মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। আর এ মাস আসলেই আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করতে একটি মহল বোমা হামলা চলায়। আজ ১৫ আগস্টও ঢাকায় ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বোমা হামলার  চেষ্টা চালানো হয়েছে। এরপূর্বেও দেশের ষড়যন্ত্রকারীরা এই বোমা হামলা চালিয়ে শ্রেষ্ঠ বাঙালির সন্তান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছিল। সিলেটেও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের হত্যা করতে বোমা হামলা করেছিল। তারা আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করতে চাই। এজন্যই ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছিল। তিনি বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধের ষড়যন্ত্রকারীরা আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করে আবারও পাকিস্তানিদের হাতে ক্ষমতা তোলে দিতে চায়। যে স্বাধীনতা ৩০ লাখ শহীদ এবং ২ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছিল । মুক্তিযোদ্ধের সংগঠক মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মাধ্যমে অর্জিত হয়েছিল সেটি ধ্বংস করতে চায়। কিন্তু তারা জানে না দেশের ১৬ কোটি মানুষ এবং আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সর্বশেষ রক্তবিন্দু যতদিন থাকবে ততোদিন এই দেশ বাংলাদেশ থাকবে। প্রধানমন্ত্রী  ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ দেশ যখন উন্নয়নের মহাসড়কে অবস্থান করছে ঠিক তখনই ষড়যন্ত্রকারীরা এই সোনার বাংলাকে ধ্বংস করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হচ্ছে। কোন ষড়যন্ত্র সফল হতে দেওয়া যাবে না। শোককে শক্তিতে রুপান্তর করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আর শক্ত করতে হবে। আমরা আগামী দিনেও দেশের সেবা করতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার মাধ্যমে আবারও ক্ষমতায় আনতে চায়।

বিশেষ অতিথি হিসেব বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক, মহানগর আওয়ামী লীগের  যুগ্মসাধারণ সম্পাদক বিজিত চৌধুরী, মোগলগাঁও ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হীরন মিয়া, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক তপন মিত্র, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক সামসুল ইসলাম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আমির উদ্দিন আহমদ, প্রচার সম্পাদক মকসুদ আহমদ মকসুদ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শাহজাহান আহমদ।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন,  জালালাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মছদ্দর আলী, সাধারণ সম্পাদক আশ্রব আলী, হাটখোলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা ফজলু মিয়া, আফতাব হোসেন,  আনসার আলী, গুলজার আহমদ, নজির মিয়া, জুবের আহমদ, মকবুল হোসেন, এমইউ লাহিন, ফারুক মিয়া, সাহাবুদ্দিন, আলী হোসেন,  মিফতাউল হক, নূর আহমদ জাহেদ, কতুব উদ্দিন, উস্তার আলী, আশরাফ উদ্দিন, আবু সুফিয়ান, শাহখুররম ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন প্রমুখ।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট