জাতিসংঘের পর্যবেক্ষকের উপস্থিতিতে,কাশ্মীর সীমান্তে পাক-ভারতের মধ্যে ব্যাপক গোলাগুলি চলছে

প্রকাশিত: ৩:০৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৪, ২০১৭

জাতিসংঘের পর্যবেক্ষকের উপস্থিতিতে,কাশ্মীর সীমান্তে পাক-ভারতের মধ্যে ব্যাপক গোলাগুলি চলছে

কাশ্মীর : কাশ্মীর সীমান্তে ফের পাকিস্তান-ভারতের সেনাবাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে। গত ৪৮ ঘণ্টায় কয়েকদফা গোলাগুলির খবর পাওয়া গেছে।

ইন্ডিয়া টাইমসের খবরে বলা হয়, সীমান্তের ওপার থেকে কোনো প্ররোচনা ছাড়াই পাক সেনারা গুলি এবং মর্টার শেল ছুঁড়ে। ভারতীয় সেনারাও এর পাল্টা জবাব দেয়।

মঙ্গলবার সকাল থেকে জম্মু-কাশ্মীরের রাজৌরি জেলায় সীমান্ত বরাবর গ্রাম এবং ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে গুলি এবং মর্টার শেল ছোড়া হয়।

ভারতীয় সেনার মুখপাত্র বলেন, ‘কোনো রকম প্ররোচনা ছাড়া হঠাত্ই্ সীমান্তের ওপার থেকে মর্টার শেল এবং গুলি ছোড়া শুরু হয়। ৮২ এমএম মর্টার শেল এবং স্বয়ংক্রিয় রাইফেল থেকে গুলি ছোড়া হচ্ছিল। জওয়ানরাও দ্রুত পোজিশন নিয়ে এর সঠিক জবাব দিয়েছে। এতে ভারতের দিকে এখনো হতাহতের কোনো খবর নেই। সোমবারও পাকিস্তানের তরফ থেকে পুঞ্চের দিগওয়ার সেক্টরে গুলি চালানো হয়।’

এ মুহূর্তে সীমান্তের কাছেই জাতিসংঘের পর্যবেক্ষক দল রয়েছে। পাকিস্তান ক্রমাগত যুগ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে চলেছে এমন অভিযোগ অতীতেও বহুবার করা হয়েছে। তাই পর্যবেক্ষক পাঠানো হয়েছে। তাদের সামনেই এ ঘটনা আন্তর্জাতিক আন্তর্জাতিক আঙিনায় পাকিস্তানের মুখ পোড়াবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

এদিকে পাক সেনাদের পক্ষ থেকেও অনুরূপ অভিযোগ করা হচ্ছে। পাক সেনার মুখপাত্র বলেছেন, সীমান্তের ওপার থেকে কোনো প্ররোচনা ছাড়াই ভারতীয় সেনারা গুলি এবং মর্টার শেল নিক্ষেপ করছে।

পর্যবেক্ষক দলের অন্যতম সদস্য দুজারিচ বলেন, ‘আমরা পরিস্থিতি লক্ষ্য করেছি। এ নিয়ে তদন্ত চলছে। পাকিস্তান এবং ভারত দু’ দেশের সীমান্তবর্তী এলাকায় পর্যবেক্ষক দল রয়েছে। বেশ কয়েকটি জায়গায় এ মুহূর্তে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে। এর পরেও ২ দেশকেই আমরা বলব যাতে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা হয়।

  •