শিগগির আবারো মেয়রের চেয়ারে দেখা যাবে বুলবুলকে

প্রকাশিত: ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০১৭

শিগগির আবারো মেয়রের চেয়ারে দেখা যাবে বুলবুলকে

রাজশাহী : দীর্ঘ আইনী লড়াইয়ের পর খু্ব শিগগিরে আবার রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের সিটে বসতে যাচ্ছে মহানগর বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ মোসাদ্দক হোসেন বুলবুল।

পুলিশ কন্সটেবল সিদ্ধার্থ হত্যা মামলায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় মেয়র বুলবুলকে বহিস্কাররের আদেশ হাই কোর্ট ও আপিল বিভাগ অবৈধ ঘোষণা করায় আইনগত আর কোনো বাধা নেই।

হাইকোর্টের আদেশের চিঠি রবিবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ে পৌছে দেয়া হয়েছে। এখন মন্ত্রনালয় থেকে রাসিকের নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে একটি চিঠি ইস্যুর অপেক্ষা।

আগামী কয়েক দিনের মধ্যে মন্ত্রনালয় থেকে মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে পুনারায় বহলের আদেশ রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার দপ্তরে পৌছাতে পারে এমন সম্ভবনা রয়েছে।

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের সরকার বিরোধী আন্দোলনের সময়ে নাশকতার চার মামলায় পুলিশের দেয়া অভিযোগপত্রে নগর বিএনপির সভাপতি বুলবুলের নাম এলে ২০১৫ সালের ৭ মে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।

এর বিরুদ্ধে তিনি হাই কোর্টে রিট আবেদন করলে হাই কোর্ট মন্ত্রণালয়ের ওই আদেশ অবৈধ ঘোষণা করে ২০১৬ সালের ১০ মার্চ রায় দেয়।

রাষ্ট্রপক্ষ হাই কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করলে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের আদেশ অবৈধ বলে হাই কোর্টের দেয়া রায় বহাল রাখে আপিল বিভাগ।

প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন খারিজ করে রবিবার এ রায় দেয়। এর ফলে মেয়র পদ ফিরে পেতে বুলবুলের আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী।

আদালতে বুলবুলের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আবদুল বাসেত মজুমদার ও সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ এফ হাসান আরিফ। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী আমিনুল হক হেলাল। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এর আগে আমিনুল হক হেলাল সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, মেয়র বুলবুলকে বরখাস্ত করে সরকারের দেয়া আদেশ ২০১৬ সালের ১০ মার্চ অবৈধ ঘোষণা করে হাই কোর্ট। এর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল বিভাগে আবেদন করেছিল। ওই আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আদালত। ফলে মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের মেয়র পদ ফিরে পেতে আইনগত আর কোনো বাঁধা নেই।

এসব মামলায় গত বছর মার্চ থেকে তিন মাস কারাগারেও ছিলেন বিএনপি নেতা বুলবুল। হাই কোর্ট থেকে জামিন পাওয়ার পর গত বছর জুনে তাকে মুক্তি দেয়া হয়।

  •