শীর্ষ বুদ্ধিজীবী নেতার সঙ্গে খালেদা জিয়ার রুদ্ধদ্বার বৈঠক

প্রকাশিত: ১:৫২ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৪, ২০১৭

শীর্ষ বুদ্ধিজীবী নেতার সঙ্গে খালেদা জিয়ার রুদ্ধদ্বার বৈঠক

নির্বাচনকালীন সরকারের গঠন কাঠামোর বিষয়ে বিএনপি সমর্থক কয়েকজন পেশাজীবী নেতার সঙ্গে আলোচনা করেছেন খালেদা জিয়া।

রবিবার রাতে গুলশানে নিজের কার্যালয়ে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকের পর সোমবার দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে প্রতিক্রিয়া জানান বিএনপি মহাসচিব ফখরুল।

বৈঠকে অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহ, অধ্যাপক আ ফ ম ইউসুফ হায়দার ছিলেন। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও ছিলেন বৈঠকে।

এবিষয়ে বিএনপির এক নেতা বলেন, ‘বিএনপি যে নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা প্রণয়নের কাজ করছে, যা শেষ পর্যায়ে আছে। ম্যাডাম তা নিয়ে উনাদের মতামত শুনেছেন।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই নেতা বলেন, ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা ‘র’কে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উক্তির বিষয়টি তুলে দলের প্রতিক্রিয়া গণমাধ্যমে জানাতে চেয়ারপারসনকে অনুরোধ জানানো হয় বৈঠক থেকে।

এ ব্যাপারে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতিসহ নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমি ম্যাডামকে সাংগঠনিক তৎপরতা আরো বাড়াতে এবং ঢাকার বাইরে যেতে অনুরোধ জানিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘আগেও যা বলেছি, এখনো তাই বলেছি। আমার অবস্থান আগের মতোই। ম্যাডামকে একজন নারী সেক্রেটারি নিয়োগ দিতে বলেছি। উনি অফিস টাইম যেন পরিবর্তন করে এগিয়ে আনেন, সেটিও বলেছি, নেতাকর্মীদের যেন আরো বেশি বেশি ডাকেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘চা খেয়েছি, কফি খেয়েছি, খোশগল্প করেছি। উনি কেমন আছেন, জানলাম।’

বৈঠকে অংশ নেয়া এমাজউদ্দীন আহমদ বলেন, ‘আমরা চার-পাঁচ জন ছিলাম। চা চক্র হয়েছে। সাধারণ রাজনৈতিক ও ব্যক্তিগত আলোচনা হয়েছে।’

আ ফ ম ইউসূফ হায়দার বলেন, ‘বৈঠক হয়েছে। আমি শুধু কথা শুনেছি। এটা নিয়ে মহাসচিব বলতে পারবেন। উনাকেই জিজ্ঞেস করুন। আমি বলার মানুষ না।’

বৈঠকে কলামনিস্ট মাহফুজ উল্লাহও ছিলেন বলে খবর ছড়ালেও তিনি তা অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘আমি বৈঠকে ছিলাম না। আমার ভাই অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহসহ চারজন ছিলেন।

  •