কানাইঘাটে মসজিদের নাম নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ৩

প্রকাশিত: ১২:৪৬ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৪, ২০১৭

কানাইঘাটে মসজিদের নাম নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ৩

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার রাজাগঞ্জ ইউনিয়নের খওয়াজপুর জামে মসজিদের নাম নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ৩ মার্চ শুক্রবার সকালে খওয়াজপুরে মাষ্টার খলিলুর রহমান ও শাহজাহান পক্ষের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। খলিল গংদের হামলায় শাহজাহান সহ ৩ জন আহত হয়েছেন।
জানা যায়, খওয়াজপুর গ্রামের মৃত মাওলানা আরশদ আলী গংরা মসজিদের জন্য ১১ ডেসিমেল ভূমি দান করেন। উক্ত ভূমিতে খওয়াজপুর দক্ষিণ জামে মসজিদ নামে নামকরণ করে নির্মাণ কাজ চলছে। একটি পক্ষ খাওয়াজপুর দক্ষিণ বাদ দিয়ে শুধু খাওয়াজপুর জামে মসজিদ নামকরণের দাবী করছেন। এমতাবস্থায় শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টায় মসজিদের কাজ চলাকালীন অবস্থায় উক্ত পক্ষের মাষ্টার খলিলুর রহমান ও তার জামাতা আব্দুল মান্নান, এরশাদ সহ ২০/২৫ লোক সংঘবদ্ধ হয়ে মসজিদ প্রাঙ্গণে এসে শাহজাহান গংদের উপর হামলা চালায়। হামলায় মছদ আলীর ছেলে শাহজাহান, মৃত হাজী খুরশেদ আলী ছেলে হামিদ আলী, হাফিজ ওয়াছির আলীর ছেলে হাফিজ জাবের গুরুতর আহত হন।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মাষ্টার খলিলুর রহমান তার বাহিনী নিয়ে মসজিদ প্রাঙ্গণে এসে নামকরণ নিয়ে শাহজাহানের সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উত্তেজনার সূত্রপাত হয়। এ সময় শাহজাহান অবস্থা বেগতিক দেখে মসজিদে প্রবেশ করেন। অপর পক্ষ মসজিদের কলাপসেপুল গেইট লাগিয়ে তাদের উপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। হামলায় ৩ জন গুরুতর আহত হন। আহতদের আর্তচিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এসে হামলাকারীদের হাত থেকে আহতদের উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। তারা বর্তমানে হাসপাতালের ৪র্থ তলার ১৬নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গুরুতর আহত শাহজাহান মিয়ার মাথায় ৮/১০টি সেলাই, বাম হাতে চাকু দিয়ে ঘা দেয়ার জায়গায়ও সেলাই দেয়া হয়েছে। অপর দুই আহতদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম ও আঘাত রয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
এ ব্যাপারে কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আহাদ জানান, মসজিদের নামকরণ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের সংবাদটি আমি শুনার পর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ব্যাপারে অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট