দেশবাসীর ৩২ ঘন্টার শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থার অবসান, যান চলাচল শুরু

প্রকাশিত: ৪:২৯ অপরাহ্ণ, মার্চ ১, ২০১৭

দেশবাসীর ৩২ ঘন্টার শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থার অবসান, যান চলাচল শুরু

পরিবহন শ্রমিকদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেওয়ায় দেশবাসীর ৩২ ঘন্টার শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থার অবসান হয়েছে। সেই সঙ্গে সারাদেশে যান চলাচল শুরু হওয়ায় ফের সচল হয়ে যাচ্ছে মানুষের জীবনের চাকা।

বুধবার রাজধানীর মতিঝিলে সড়ক পরিবহন সমিতির কার্যালয়ে নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাহজাহান খানের সঙ্গে মালিক-শ্রমিক নেতাদের বৈঠকের পর দুপুর ২টার দিকে সারাদেশে চলমান পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

এর আগে সচিবালয়ে পরিবহন শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীসহ চারমন্ত্রীর রুদ্ধদ্বার বৈঠকের পর সারাদেশে ধর্মঘট প্রত্যাহারের ইঙ্গিত দেন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বৈঠকে নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান ও স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙা উপস্থিত ছিলেন।

দুপুর ২টার দিকে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেওয়ায় দেশবাসীর ৩২ ঘন্টার শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থার অবসান হয়।

প্রত্যাহার ঘোষণার পর থেকে রাজধানী ঢাকা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, খুলনা ও সিলেটসহ সারাদেশে থেকে আবার রাজপথে যানবাহন চলতে শুরু করেছে।

ক্রমেই স্বাভাবিক হয়ে আসছে মানুষের জীবনযাত্রা। মানুষ ঘর থেকে বের হয়ে গন্তব্যস্থলে যেতে শুরু করেছে।

প্রসঙ্গত, মানিকগঞ্জে এক ড্রাইভারকে যাবজ্জীবন ও সাভারে অপর এক ড্রাইভারকে আদালত ফাঁসির আদেশ দিলে সারাদেশে একযোগে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাক দেয় পরিবহন শ্রমিক সংগঠনগুলো। মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে তারা রাস্তায় নেমে আসে। তারা কোনো ধরনের যানবাহন চলতে দেয়নি। ধর্মঘটের সময় রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পুলিশের সাথে তারা সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

৩২ ঘন্টার অবর্ণনীয় দুর্ভোগ শেষে সরকারের হস্তক্ষেপে পরিবহন শ্রমিক নেতৃবৃন্দ ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন।

 

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট