জগন্নাথপুরে আ,লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তাদীর বহিস্কার

প্রকাশিত: ৯:৪৫ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৭

জগন্নাথপুরে আ,লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তাদীর বহিস্কার

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি : জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনিত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বর্তমান পরিষদের চেয়ারম্যান আকমল হোসেনের নৌকা প্রতীকের বিপক্ষে দলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বর্তমান পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তাদীর আহমদ মুক্তাকে দল থেকে বহিস্কার করেছে উপজেলা আওয়ামীলীগ।

একই সাথে জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ প্রার্থী বিজন কুমার দেবের নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কামাল উদ্দিনকে বহিস্কার করতে সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগ ও কেন্দ্রীয় যুবলীগকে জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (২১ ফেব্রয়ারী) জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মোঃ আকমল হোসেন ও সাধারন সম্পাদক রেজাউল করিম রিজুর যৌথ সাক্ষরিক গনমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত মঙ্গলবার জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্য্যালয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্য নির্বাহী কমিটির এক বিশেষ জরুরী সভায় সিন্ধান্ত হয়, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ালীগের সভাপতি বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক সাক্ষরিত নৌকা প্রতীকে জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মোঃ আকমল হোসেন কে মনোনয়ন দেওয়া হয়। কিন্তু উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুক্তাদীর আহমদ মুক্তা দলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেন। মনোনয়ন প্রত্যাহারের দিন পর্যন্ত অনেক অনুরোধ করা স্বত্ত্বেও মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন নাই। তাই উপস্থিত সকল সদস্য সর্ব সম্মতিক্রমে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের স্থানীয় সরকার নির্বাচনী বোর্ড ও বোর্ডের সভাপতি দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার সিন্ধান্ত অমান্য করায় মুক্তাদীর আহমদকে সাংগঠনিক পদসহ দলের প্রাথমিক সদস্য পদ থেকে বহিষ্কার করার সিন্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে। সাথে সাথে উপজেলা আওয়ামীলীগ, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের কোন নেতাকর্মী প্রকাশ্যে অথবা গোপনে তার পক্ষে প্রচারনা থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করা হয়। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহনের সিন্ধান্ত গৃহিত হবে।
এছাড়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বিজন কুমার দেব’র বিরুদ্ধে জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি কামাল উদ্দিন বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী যুবলীগ ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগকে অনুরোধ জানানো হয়।
বহিস্কার প্রসঙ্গে জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মুক্তাদীর আহমদ গনমাধ্যমে একটি প্রতিক্রিয়া পাঠান। এতে তিনি বলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যকরী কমিটির সভায় অগঠনতান্ত্রিকভাবে কোরাম পূরন ছাড়াই মনগড়া সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে যা দুঃখজনক। তিনি বলেন, আমি তৃণমূল নেতাকর্মীদের উৎসাহে জনগন মনোনীত প্রার্থী হিসেবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধীতা করছি। আজ যে সিন্ধান্ত নেয়া হয়েছে তা পরিক্ষিত ও তৃনমুল নেতাকর্মীদের মনোভাব পরিপন্থি। সুকৌশলে তাদের প্রার্থীর পরাজয় আঁচ করতে পেরে সাধারণ নেতাকর্মীদেরকে বিভ্রান্ত করার জন্য এটি একটি অপকৌশল বলে আমি মনে করি। বিগত জগন্নাথপুর পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীদেরকে পরাজিত করতে যারা বিভিন্ন অপকৌশলে চক্রান্তে মেতে উঠেছিলেন তাদের এধরনের সিদ্ধান্ত নেয়ার নৈতিক অধিকার নেই। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের গঠনতন্ত্র মোতাবেক উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদককে বহিস্কার করার ক্ষমতা উপজেলা আওয়ামীলীগ রাখে না। তাই এধরনের কুটকৌশলের অপরাজনীতিতে নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য মুজিব আর্দশের প্রকৃতসৈনিকদের প্রতি আহ্বান জানাই। তিনি আরো বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচন সমূহে দলীয় ভিত্তিতে প্রার্থী ঘোষনা করলেও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ পরবতীতে শিথিলতা ঘোষনা করেন। সেই প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের সহানুভূতি নিয়ে আমি প্রার্থী হয়েছি। শত কৌশল অপপ্রচার বিভ্রান্ত দিয়ে মুজিব আর্দশ থেকে আমাকে বিচ্যুত করা যাবে না। আমি বিশ্বাস করি ৬ মার্চ সর্বস্তরের জনসাধারণ দল মত নির্বিশেষে একজন পরিক্ষিত রাজনৈতিক কর্মীকে অবমূল্যায়নের জবাব ব্যালেটের মাধ্যমে প্রদান করবেন।
আরেক বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধ¦ীতাকারী জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগ সভাপতি কামাল উদ্দিন জানান, আমাকে বহিস্কারের ক্ষমতা আওয়ামীলীগের নেই। আমি যুবলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। যুবলীগের সকল পযার্য়ের নেতৃবৃন্দের সিন্ধান্তে আমি নির্বাচনে অংশ নিয়েছি।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট