জাফলংয়ে পাথরচাপায় দুই শ্রমিক নিহত, আটক ৭

প্রকাশিত: ২:০২ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৭

জাফলংয়ে পাথরচাপায় দুই শ্রমিক নিহত, আটক ৭

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার জাফলংয়ের সংগ্রামপুঞ্জি এলাকায় পাথরচাপা পড়ে দুই শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো একজন। রবিবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে হারুন মিয়ার কোয়ারিতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় কোয়ারী মালিকসহ ৭জনকে আটক করেছে পুলিশ।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বিজিবির সংগ্রামপুঞ্জি এলাকায় হারুন মিয়া নামের একজন লোক চুনাপাথর উত্তোলন করে আসছিলেন। ওই কোয়ারিতে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার তেলিখাল গ্রামের মদরিস আলীর পুত্র কামরুজ্জামান, জিয়াদুর রহমানের পুত্র তাজউদ্দিন, মছফত আলীর পুত্র আব্দুর রশিদসহ কয়েকজন শ্রমিক কাজ করে আসছিলেন। রবিবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে পাথরচাপা পড়ে কামরুজ্জামান (২৮) ও তাজউদ্দিন (৩০) ঘটনাস্থলেই মৃত্যুবরণ করেন।
অপরদিকে আব্দুর রশিদ গুরুতর আহত হন। তাকে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

গোয়ানাইঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান এ ঘটনায় ৭জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে কোয়ারি মালিক দুলাল আহমদও রয়েছেন। বাকী ছয় জন পাথর শ্রমিক বলে জানান ওসি।

খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ভাবে সিলেটের সহকারী পুলিশ সুপার আবুল হোসেন, সার্কেল এ এসপি মতিয়ার রহমান ও ইউএনও গোয়াইনঘাট মো. সালাহ উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে থানা পুলিশ নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

উল্লেখ্য, এনিয়ে গত এক মাসে সিলেটের বিভিন্ন কোয়ারিতে পাথর উত্তোলনকালে মাটিচাপায় মারা গেছেন অন্তত ১৩ শ্রমিক। এরমধ্যে সবচেয়ে বড় দুর্ঘটনাটি ঘটে গত ২৩ জানুয়ারি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার শাহ আরেফিন টিলায়। পুলিশের ভাষ্য মতে, ওইদিন টিলা ধসে মারা যান পাঁচ শ্রমিক। তাছাড়া বিছনাকান্দি, লোভাছড়ায় মাটিপাচায় আরো ৬ শ্রমিকের মৃত্যু ঘটে। সিলেট জেলা প্রশাসনের তথ্যানুসারে, গত ছয় মাসে শাহ আরেফিন টিলা ধসে মারা গেছেন ১৮ জন শ্রমিক।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট