শুধু ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকারও নিরপেক্ষ হতে হবে : খালেদা জিয়া

প্রকাশিত: ১:৩২ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২২, ২০১৭

শুধু ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকারও নিরপেক্ষ হতে হবে : খালেদা জিয়া

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, সরকারের ইচ্ছা মাফিক দলীয় মেরুদণ্ডহীন লোক দিয়ে নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠন করা হলে জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না বলে ।

শনিবার রাতে রাজধানীর গুলশানে তার রাজনৈতিক কার্যালয়ে জিয়া পরিষদের প্রতিনিধি সম্মেলন ২০১৭ উপলক্ষ্যে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপির চেয়ারপারসন বলেন আরো, শুধু নিরপেক্ষ ও শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠন হলেই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য নিরপেক্ষ সরকারও হতে হবে। সেই জন্য আমরা নিরপেক্ষ সরকারের কথাও বলে এসেছি।

তিনি আরো বলেন রাষ্ট্রপতি কোনো দলের নয়, দেশের। তার সঙ্গে আমরা দেখা করেছি, লিখিতভাবে কিছু বিষয় তুলে ধরেছি। আওয়ামী লীগও দেখা করেছে, লিখিত দিয়েছে।

এখন রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব হবে, সবার প্রস্তাবগুলো বিচার বিশ্লেষণ ও সমন্বয় করে নিরপেক্ষ লোক দিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করা। এক্ষেত্রে সরকারের ইচ্ছা মাফিক দলীয় ও মেরুদণ্ডহীন লোক দিয়ে নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠন করা হলে জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না।

জিয়া পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কবীর মুরাদের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ড. মোহম্মদ শফিকুল ইসলাম, প্রফেসর ড. ওবায়দুল ইসলাম, প্রফেসর ড. সলিমুল্লাহ খান, বঙ্গবন্ধু কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রফেসর ড. মোস্তাফিজুর রহমান, শেরে-ই বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রফেসর ড. আবদুল লতিফ, প্রফেসর ড. নাহিদ জেবা, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রফেসর ড. মো. জাকির হুসাইন, জিয়া পরিষদের বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ড. মো. হাসানাত আলী প্রমুখ।

বিএনপি নেতাদের মধ্যে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, মির্জা আব্বাস ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট