জকিগঞ্জে থানায় বিয়ে হলো প্রেমিক যুগলের

প্রকাশিত: ১১:৪৬ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৭, ২০১৭

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি : সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার আমলসীদ গ্রামের মৃত মন্তজীর আলীর ছেলে আব্দুল হাছিব ও একই গ্রামের সোহেল আহমদের মেয়ে সুলতানা বেগমের মধ্যে দীর্ঘ ১ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। একপর্যায়ে সুলতানা বেগম অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে আব্দুল হাছিবকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়।
বিয়েতে বাধা হয়ে দাঁড়ায় আব্দুল হাছিবের পরিবার। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের দ্বারে-দ্বারে ঘুরেও কোনো কোল-কিনারা পায়নি সুলতানা বেগম। অন্তঃসত্ত্বা সুলতানা বেগম অবশেষে নিরুপায় হয়ে থানায় অভিযোগ করেন। জকিগঞ্জ থানা পুলিশের এস আই গৌতম সরকার গত বুধবার প্রেমিক হাছিবকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন। পরে জকিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হাবিবুর রহমান হাওলাদার, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও উভয় পক্ষের অভিভাবকদের উপস্থিতিতে উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সহায়তায় ৫ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার রাতে থানায় বিয়ের আয়োজন করা হয়। উভয় পক্ষের সম্মতিতে ২ লাখ টাকা মোহরানায় তাদের বিবাহ কার্য সম্পন্ন হয়।
বর-কনের সাজসহ বিয়ের আয়োজনে সহযোগিতা করেন- উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবাল আহমদ, জকিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হাবিবুর রহমান হাওলাদার, পৌর কাউন্সিলর কামরুজ্জামান, পৌর কাউন্সিলর ও দৈনিক মানবজমিনের জকিগঞ্জ প্রতিনিধি রিপন আহমদ, কাউন্সিলর আতাউর রহমানসহ আগতরা। বিবাহ অনুষ্ঠানে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ইউপি সদস্য আতাউর রহমান, সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল মতিন, প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক শ্রীকান্ত পাল ও বর-কনের পরিবারের সদস্য ছাড়াও সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদসহ উৎসুক শতাধিক মানুষের ভিড় ছিল। বিবাহের অনুষ্ঠান শেষে জকিগঞ্জ থানা পুলিশের উদ্যোগে উপস্থিত সকলের মধ্যে মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট