লুটপাট করতেই গ্যাসের দাম বৃদ্ধি : রিজভী

প্রকাশিত: ৩:০১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৬

গ্যাস কোম্পানিগুলোর মোটা অংকের মুনাফার পরও এ বছরই গ্যাসের দাম বৃদ্ধির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে লুটপাট, সরকারি দল ও ক্ষমতাসিননদের স্বজনদের পকেট ভারি করা বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

সোমবার দুপুরে বিএনপির নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আগামী ১ জানুয়ারি থেকে সম্পূর্ণ অযৌক্তিকভাবে গ্যাসের মূল্য দ্বিগুণ বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার। গ্যাসের এই দাম বৃদ্ধি জনগণের বিরুদ্ধে সরকারের নির্লিপ্ততা

রিজভী বলেন, সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে মাত্র ৯ মাসের ব্যবধানে অবৈধ সরকারের আবারো গ্যাসের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত মানুষকে হতবাক করেছে। বিগত অর্থবছরেও গ্যাস কোম্পনিগুলো মোটা অংকের মুনাফা করেছে। গ্যাস খাতে সরকারের কোনো লোকসানতো নেই-ই বরং মোটা অংকের মুনাফা হচ্ছে। কোম্পানিগুলো যেমন মুনাফা করছে, তেমনি সরকারের কোষাগারে দিচ্ছে মোটা অংকের অর্থ।

তিনি জানান, গড়ে ৮৮ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে গ্যাস খাতের কোম্পানিগুলো। এর মধ্যে সর্বোচ্চ দাম বৃদ্ধি হচ্ছে গৃহস্থালি কাজে ব্যবহৃত গ্যাসের যা ১৪০ শতাংশ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩০ শতাংশ দাম বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে ক্যাপটিভ বিদ্যুৎকেন্দ্রে ব্যবহৃত গ্যাসের। বিদ্যুতে ব্যবহৃত গ্যাসের ক্ষেত্রে ৬৩ শতাংশ, সারে ব্যবহৃত গ্যাসের ক্ষেত্রে ৭১ শতাংশ, শিল্পে ব্যবহৃত গ্যাসের ক্ষেত্রে ৬২ শতাংশ, বাণিজ্যিকে ব্যবহৃত গ্যাসের ক্ষেত্রে ৭২ শতাংশ, সিএনজিতে ব্যবহৃত গ্যাসের ক্ষেত্রে ৮৩ শতাংশ।

তিনি আরো বলেন, গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সাথে সাথে এর সরাসরি প্রভাব পড়বে জনগণের অতি প্রয়োজনীয় নিত্যব্যবহার্য সবকিছুর ওপর। অতিষ্ঠ হবে জনজীবন। বাসা ভাড়া থেকে শুরু করে পরিবহন ভাড়া সেই সাথে দাম বাড়বে নিত্যপ্রয়োজনীয় সব পণ্যের। ব্যবসা বাণিজ্যের খরচ বৃদ্ধি সাথে সাথে প্রতিযোগিতামূলক বাজারে টিকে থাকা কষ্টকর হবে।

আওয়ামী শাসকবৃন্দের দূর্ণীতির দূর্নাম বিশ্ব মিডিয়ায় ব্যাপক প্রচার পেয়েছে  উল্ল্যেখ করে রিজভী বলেন, বাংলাদেশে এখন ব্যবসায়ীরা পথে বসতে শুরু করেছে। পোশাক শিল্পসহ বিভিন্ন শিল্পে বিপজ্জনক ধস নেমেছে। এখন নীল নকশা অনুযায়ী পোশাক শিল্পকে ধ্বংস করে কোন শক্তির পক্ষে কাজ করা হচ্ছে বলেও এখন অনেকে বিশ্বাস করে। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির পক্ষ থেকে আমি অযুক্তিক গনবিরোধী গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এ ধরনের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার জোরালো আহবান জানাচ্ছি।

  •