এই প্রথম নারী জঙ্গির আত্মসমর্পণের ভানে আত্মঘাতী হামলা

প্রকাশিত: ৯:০২ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৬

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সামনেই রাজধানীর দক্ষিণখানের একটি তিনতলা বাসায় এক নারী আত্মঘাতী বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিজেকে উড়িয়ে দিয়েছে। নজিরবিহীন এই ঘটনা বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম। যেখানে কোনো নারী জঙ্গি নিজের শরীরে বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আত্মঘাতী হামলা চালিয়েছে। সূর্যভিলা নামে ওই বাড়িটি গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ঘেরাও করে পুলিশ। শনিবার সকালে ওই বাড়ি থেকে দুই নারী ও তাদের দুই সন্তান পুলিশের হাতে ধরা দিয়েছেন। তাদের একজন সন্তানসহ বেলা সাড়ে ১২টার দিক বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন। সে আত্মসমর্পণের অভিনয় করে এসেছিলেন পুলিশের কাছে। ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলামের ভাষ্য অনুযায়ী বিস্ফোরণে ওই নারীর মৃত্যু হয়েছে। মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘বাড়ির ভেতরের ছেলে আফিফ কাদেরীও পুলিশকে লক্ষ্য করে গ্রেনেড বা বোমা ছুড়েছে। এর জবাবে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। বাড়ির ভেতরে অস্ত্র দেখা যাচ্ছে, এগুলো ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। কী অবস্থায় আছে তা জানা যায়নি এখনো। তিনি বলেন, ‘আফিফ কি ভান ধরে পড়ে আছে নাকি আত্মঘাতী বিস্ফোরণ করে আহত বা নিহত হয়েছে সেটা নিশ্চিত করা যায়নি। মনিরুল আরো বলেন, ‘যেহেতু ভেতরে বোমা বা বিস্ফোরক পড়ে আছে, তাই পুলিশকে সাবধানতার সঙ্গে পা বাড়াতে হয়েছে।’ ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া জানিয়েছেন, ‘তাদেরকে আত্মসমর্পণের আহ্বানের পর দুই জন আত্মসমর্পণের ভান করে আত্মঘাতী হামলা করেছে। ওই নারীর সন্তানটিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট