ভোট দেয়ার পর যা বললেন সাখাওয়াত

প্রকাশিত: ১:১৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২২, ২০১৬

নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান বলেছেন, নির্বাচন সুষ্ঠু হলে ফলাফল যাই হোক তা মেনে নেবেন তিনি।

তিনি বলেন, নির্বাচন শেষ পর্যন্ত সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও নির্বিঘ্ন হলে ফলাফল যা-ই হোক আমরা নির্বাচনে থাকব এবং ফলাফল মেনে নেব।

বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৮টার পর তিনি নগরীর ১৩নং ওয়ার্ডের মাসদাইরের আদর্শ স্কুল ভোটকেন্দ্রে ভোট প্রদান শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ মেয়র প্রার্থী আশা প্রকাশ করে বলেন, ভোটাররা যদি শেষ পর্যন্ত সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারে, তাহলে ধানের শীষ বিপুল ভোটের ব্যাবধানে বিজয় লাভ করবে।

সকালে নির্বাচনের পরিবেশ সন্তোষজনক উল্লেখ করে সাখাওয়াত হোসেন বলেন, আমরা আশা করছি সরকার বা প্রশাসন এমন কোনো আচরণ করবে না যাতে নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হয়।

সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, আমরা নির্বাচনে আছি, সরে যাবার প্রশ্নই আসে না। আগেই বলেছি ফলাফল যা-ই হোক ধানের শীষের প্রতীক শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবে।

আজ সকাল ৮টা থেকে নাসিক নির্বাচনে ১৭৪ কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। চলবে বিকাল চারটা পর্যন্ত।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমূর আলম খন্দকার।

অবশ্য ভোট শুরুর বেশ আগেই দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে সাখাওয়াত কেন্দ্রে উপস্থিত হন। সকাল ৮টায় এই কেন্দ্রে ভোট শুরু হলে তিনি ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

এ নির্বাচনে ব্যালটে মেয়র পদে সাতজন প্রার্থী হলেও মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর নৌকা ও বিএনপি মনোনীত অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানের ধানের শীষ প্রতীকের মধ্যে।

ইসির হিসাব অনুযায়ী, ২৭ ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত এ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৭৪ হাজার ৯৩১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৩৯ হাজার ৬৬২ ও মহিলা ভোটার ২ লাখ ৩৫ হাজার ২৬৯ জন।

নির্বাচনে ভোট কেন্দ্র ১৭৪টি। এর মধ্যে ৪টি অস্থায়ী কেন্দ্র রয়েছে। ভোটকক্ষের (বুথ) সংখ্যা ১ হাজার ৩০৪টি। ভোট গ্রহণে চার হাজারের বেশি নির্বাচন কর্মকর্তা নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

  •