কমলগঞ্জে এইচএসসির ফরম পূরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায়

প্রকাশিত: ৯:১১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৬

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষার ফরমপূরনে বোর্ড নিধারির্ত ফি ছাড়াও কমলগঞ্জ উপজেলার কলেজ গুলোতে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিভিন্ন খাত দেখিয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কলেজ র্কতৃপক্ষ বাড়তি অর্থ আদায় করলেও অধিকাংশ ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের কোন রশিদ প্রদান করছে না। ফলে দরিদ্র পরিবারের অভিভাবকরা এই টাকা যোগান দিতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। অসহায় অনেকেই ঋণগ্রস্থ হয়ে সুদে টাকা সংগ্রহ করে ফরম পুরণ করাচ্ছেন।
সিলেট শিক্ষা বোর্ডের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বিলম্ব ফি ছাড়া পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণ ১৫ ডিসেম্বর হতে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত। বোর্ডের নির্ধারিত পরীক্ষা ফি প্রতি পত্রের জন্য ৯০ টাকা (মোট বিষয় ১৩টি), প্রতি পত্রের ব্যবহারিক পরীক্ষা ফি ৪০ টাকা, কেন্দ্র ফি ৩০০ টাকা, ব্যবহারিক পরীক্ষার্থীদের ৩০০ টাকা এবং প্রতি পত্রের জন্য ২৫ টাকা হিসেবে, একাডেমিক ট্রান্সক্রিপ্ট ফি ৫৫ টাকা, সনদ ফি ১০০ টাকা, জিপিএ উন্নয়ন ১০০ টাকা, স্কাউট বা গার্ল গাইড ফি ১৫ টাকা, জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ফি ৫ টাকা, উন্নয়ন ফি ৫০ টাকা, রেড ক্রিসেন্ট ফি ২০ টাকা, অনলাইন ফি ৫ টাকা মিলিয়ে মানবিক বিভাগে সর্বমোট ২০১৫ টাকা ও বিজ্ঞান বিভাগে ২৩৮০ টাকা। কিন্তু কমলগঞ্জের শমশেরনগর সুজা মেমোরিয়াল কলেজ উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৩৩০০ টাকা এবং উপবৃত্তি প্রাপ্ত নয় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৫০০০ টাকা হারে অর্থ আদায় করছে। কমলগঞ্জ গণ মহাবিদ্যালয় ২৭০০ টাকা থেকে ৩০০০ টাকা, শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজ ৪৮৫০ টাকা এবং আব্দুল গফুর মহিলা কলেজ ২৫০০ টাকা থেকে ২৮০০ টাকা হারে ফি আদায় করছে। সাথে কোচিং ফি এবং জানুয়ারী-জুন ২০১৭ সন পর্যন্ত ৬ মাসের অগ্রিম বেতন যুক্ত করা হচ্ছে। ফলে শিক্ষার্থীদের উপর ফরম পূরণের সময় টাকার বোঝা বহন করতে হচ্ছে। বিএএফ শাহীন কলেজ শমশেরনগর ৪৮৫০ ফরম পূরণের টাকার সাথে ৬ মাসের অগ্রিম বেতন ৯৭৮০ টাকা যুক্ত করে ১৪৬১৫ টাকা ফি আদায় করছে।
অভিভাবক তৌফিক আহমদ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমার দুই সন্তান সুজা মেমোরিয়াল কলেজ থেকে এ বছর পরীক্ষা দিবে। বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর জন্যও ঋণগ্রস্ত হয়ে ৩৭৭০ টাকা পরিশোধ করতে হয়েছে। বৃত্তি পায় না এমন শিক্ষার্থীদের ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা হারে ফি প্রদান করতে হচ্ছে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে কমলগঞ্জ গণ মহাবিদ্যালয়, আব্দুল গফুর মহিলা কলেজ ও সুজা মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষকরা বলেন, ফরম পূরণে বোর্ড নির্ধারিত ফি নেয়া হচ্ছে। অতিরিক্ত কোন টাকা নেয়া হচ্ছে না। তবে বেতন যুক্ত হওয়ায় টাকার পরিমাণ কিছুটা বেশি বলে মনে হচ্ছে।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট