প্রকাশিত সংবাদের সংশোধনী ও চারাদিঘীরপার এলাকাবাসীর বক্তব্য

প্রকাশিত: ১:২৪ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৬

১১ ডিসেম্বর সিলেট সংবাদ ডট কম এ “নগরীতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধু’র উপর প্রতিবেশি’র হামলা” শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের একাংশে এ ঘটনা সম্পর্কে স্থানীয় ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাবেদ আহমদের বক্তব্য ছাপা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে এ বক্তব্যটি আহত অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধু সুলতানা বেগমের স্বামী আসাদ মিয়ার । ভুলবশত বক্তব্যটি ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাবেদ আহমদের বরাত দিয়ে ছাপা হয়েছে । যদিও ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাবেদ তখন ওসামানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধুর পাশে ছিলেন। কাউন্সিলর জাবেদ আহমদ আমাদের প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে জানিয়েছেন , গৃহবধুকে দেখতে তিনি হাসপাতালে গিয়েছিলেন ।বিষয়টি আপোষ নিষ্পত্তির চেষ্টা চলছে বলেও তিনি জানান ।
এলাকাবাসীর বক্তব্যঃ “নগরীতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধু’র উপর প্রতিবেশি’র হামলা” প্রকাশিত ঐ সংবাদটি তথ্য নির্ভর নয় বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বিশিষ্ট’জনেরা । স্থানীয় চারাদিঘীর পার এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ সাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয় এলাকার মসজিদ প্রাঙ্গনে গত শনিবার মাগরিবের নামাজের সময় বাচ্চারা চেচামেচি ও চিৎকার করলে দুলাল তাদের নিবৃত করে নামাজ আদায় করতে বলেন। এসময় আসাদ মিয়া দুলালের বারন করা বিষয়টি নিয়ে কটুক্তি সুরে কথা বলেন ।নামাজ শেষে দুলাল তার সঙ্গে এমন আচরন করা টিক হয়নি বলতে গেলে আসাদ ও তার স্ত্রী দুলালকে ঝাপটে ধরেন । এ নিয়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতি হয়। পরে স্থানীয় লোকজনের হস্তক্ষেপে সবাই নিবৃত হয়ে যার যার বাসায় চলে যান। মারামারির কোন ঘটনা ঘটেনি । বিবৃতিতে আসাদ মিয়ার ৪ ভাইয়েরও সাক্ষর রয়েছে ।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট