দুই শতাধিক প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত

প্রকাশিত: ১২:৩৯ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৮, ২০১৬

প্রথমবারের মতো ভোট হতে যাওয়া আসন্ন জেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান, সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে দুই শতাধিক প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়ে গেছে। এদের সবাই ক্ষমতাসীন দল সমর্থিত।

এর মধ্যে ৬১টি জেলা পরিষদের ২০টিতেই চেয়ারম্যান হচ্ছেন বিনা ভোটে। আর সদস্য পদে ১৩৭ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৫১ জনের কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই। সবমিলিয়ে ৬১ জেলা পরিষদে তিন পদে ২০৮ জন প্রার্থী বিনাভোটে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

ইসি সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, মনোনয়নপত্র বাছাই শেষ হওয়ার পর এই চিত্র পাওয়া গেছে। তবে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সময় শেষ হলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতার প্রার্থীর তালিকা আরো বড় হতে পারে। স্থানীয় সরকারের জনপ্রতিনিধির ভোটে হতে যাওয়া এ নির্দলীয় নির্বাচনে বিএনপি ও জাতীয় পার্টি সমর্থিত কোনো প্রার্থী অংশ না নেয়ায় শুধু আওয়ামী লীগ সমর্থিতদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

তারা জানান, চেয়ারম্যান পদে ১৯০টি মনোনয়নপত্র জমা পড়ে। সদস্য পদে তিন হাজার ৫৬১টি এবং সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্য পদের জন্য ৮৯৫ জন মনোনয়নপত্র জমা দেন। বাছাইয়ের পর সাধারণ সদস্য পদে একক প্রার্থী রয়েছেন ১৩৭ জন, আর সংরক্ষিত ৫১ জন বিনা

প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে।

সূত্রমতে, চেয়ারম্যান পদে বিনাভোটে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন বাগেরহাট, বরগুনা, ভোলা, ঢাকা, চট্টগ্রাম, দিনাজপুর, গাজীপুর, হবিগঞ্জ, জয়পুরহাট, যশোর, ঝালকাঠি, কিশোরগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, নওগাঁ, নারায়ণগঞ্জ, নাটোর, নেত্রকোণা, সিরাজগঞ্জ, শেরপুর ও ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রার্থীরা।

এছাড়া বগুড়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কুমিল্লা, কক্সবাজার, ফরিদপুর, ফেনী, গোপালগঞ্জ, কুড়িগ্রাম, মাদারীপুর, নীলফামারী, সাতক্ষীরা, টাঙ্গাইল, কুষ্টিয়া, নরসিংদী, রংপুর ও শরীয়তপুর জেলায় রয়েছেন দুইজন করে প্রার্থী। খুলনা, মাগুরা, ময়মনসিংহ, পটুয়াখালী ও রাজশাহীতে প্রার্থী রয়েছেন তিনজন করে। চারজন করে প্রার্থী রয়েছে- বরিশাল, চুয়াডাঙ্গা, ঝিনাইদহ, লক্ষ্মীপুর, মেহেরপুর, নড়াইল, নোয়াখালী, পাবনা, পিরোজপুর, রাজবাড়ি, সুনামগঞ্জ, সিলেট ও লালমনিরহাট জেলায়। পাঁচজন করে প্রার্থী রয়েছে- গাইবান্ধা. মানিকগঞ্জ ও মৌলভীবাজারে। চাঁদপুর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে ছয়জন করে প্রার্থী, জামালপুরে প্রার্থী রয়েছেন সাতজন এবং সর্বোচ্চ প্রার্থী আটজন রয়েছেন পঞ্চগড়ে।

উল্লেখ্য, তিন পার্বত্য জেলা বাদে ৬১ জেলা পরিষদে ২৮ ডিসেম্বর ভোটের দিন রেখে গত ২০ নভেম্বর তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। তফসিল অনুযায়ী, ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চেয়ারম্যান, সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন প্রার্থীরা। ৩ ও ৪ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র বাছাই হয়েছে। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ১১ ডিসেম্বর। এই নির্বাচনে সরাসরি ভোট হবে না। জেলাগুলোতে স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা ভোট দিয়ে নিজ নিজ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্য (সাধারণ ও সংরক্ষিত) নির্বাচন করবেন।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট