উৎসবমুখর পরিবেশে নিউইয়র্কে থ্যাংকসগিভিং ডে উদযাপিত

প্রকাশিত: ২:৪৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৭, ২০১৬

নানা আয়োজনে উৎসবমুখর পরিবেশে নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রে গত বৃহস্পতিবার উদযাপিত হয়েছে ঐতিহ্যবাহী থ্যাংকসগিভিং ডে।

অভিবাসনের দেশ আমেরিকায় ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলে উৎসব আনন্দের মাধ্যমে উদযাপন করে থ্যাংকসগিভিং ডে। আমেরিকার এক সর্বজনীন সামাজিক সাংস্কৃতিক উৎসব এটি। বছরের অন্যতম ছুটির দিন হওয়ায় এদিন দূর দূরান্ত থেকে লোকজন ছুটে চলে নিকটজনের সান্নিধ্যে। টার্কিভোজ থ্যাংকসগিভিং ডের অন্যতম আকর্ষণ।

বেশ ঘটা করে মোরগ সদৃশ্য এ প্রাণিটি রান্না করা হয়। টার্কি থ্যাংকসগিভিং ডের খুবই জনপ্রিয় খাবার আমেরিকানদের কাছে। স্বজনদের সাথে নৈশভোজে টার্কি ভোজের মাধ্যমে দিবসটি পালন করা ঐতিহ্যের অংশ। নৈশভোজের আগে প্রার্থনা করা হয় রক্ষনশীল পরিবারগুলোতে।

থ্যাংকসগিভিং ডের পরদিন শুক্রবার ব্ল্যাক ফ্রাইডে। বছরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যের এদিন বিভিন্ন ব্যবসায়ি প্রতিষ্ঠান দেয় ফ্রাইডে’র বিশেষ মূল্যছাড়। কেনা-কাটার উৎসবের দিন এটি। দিন-রাত দোকান পাটে চলে বিরাট মূল্যছাড়ের আয়োজন। প্রায় অর্ধেক মুল্যে জিনিস পত্র কেনা-কাটার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ে লোকজন।

থ্যাংকসগিভিং ডে আর ব্ল্যাক ফ্রাইডেকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশি কমিউনিটিতেও চলে নানা উৎসব আয়োজন। চলে কেনা-কাটার বিশেষ ধূম। ঘরে ঘরে তার্কির রোস্ট ছাড়াও আয়োজন করা হয় ভিন্ন স্বাদের খাবারের। নিউইয়র্কসহ পুরো যুক্তরাষ্ট্রে এটি যেন এখন বাঙালিদের উৎসবে পরিণত হয়েছে।

এদিকে, থ্যাংকসগিভিং ডে উপলক্ষে নিউইয়র্কের অন্যতম সাহিত্য সংগঠন সাজুফতা সাহিত্য ক্লাব নিউইয়র্ক আয়োজন করে ভিন্ন আমেজের বাঙালী বান্ধব অনুষ্ঠান। গত ২৪ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রবাসের অন্যতম কবি জুলি রহমানের ব্রঙ্কসের বাসায় অনুষ্ঠিত হয় এ ব্যতিক্রমী উৎসব। আনন্দঘন উৎসবে যোগ দেন প্রবাসের সাহিত্য-সংস্কৃতি প্রেমিরা। সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলে এ উৎসব আয়োজন। গান-কবিতা-সঙ্গীতের পাশাপাশি চলে টার্কিভোজসহ বাহারীসব খাবার দাবার।

অনুষ্ঠানে কবি জুলি রহমান ছাড়াও গান-কবিতা-সঙ্গীতে অংশ নেন সঙ্গীত শিল্পী তাহমিনা সহীদ, অধ্যাপক মো. ইলিয়াস হোসেন, মেহের চৌধুরী, শামীম আরা আফিয়া, রৌশন হাসান, মো. ফজলুর রহমান, মমতাজ বেগম আলো, কামরুন্নাহার প্রমুখ। শেষে সভাপতি উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

উল্লেখ্য, নভেম্বর মাসের তৃতীয় বৃহস্পতিবার আমেরিকার থ্যাংকসগিভিং ডে উৎসব উদযাপিত হয়ে আসছে। দুশ’ বছরেরও বেশি সময় থেকে এ থ্যাংকসগিভিং ডে পালিত হয়ে আসছে বলে জানা যায়। ১৬২১ সালে ধর্ম প্রচারকরা প্রথমবারের মত স্থানীয়দের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানোর জন্য থ্যাংকসগিভিং ডে’র সূচনা করেন। ১৭৮৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মত রাষ্ট্রিয়ভাবে দিবসটি পালিত হয়। কংগ্রেসের সুপারিশ অনুযায়ী প্রেসিডেন্ট জর্জ ওয়াশিংটন থ্যাংকসগিভিং ডে’কে রাষ্ট্রীয়ভাবে পালনের ঘোষণা প্রদান করেন। ১৮৬৩ সালে প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিংকনের সময় দিবসটি জাতীয় ছুটির দিন হিসাবে স্বীকৃতি পায়।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট