আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট

প্রকাশিত: ৭:০৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০১৬

আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন-আইটিইউ টেলিকম ওয়ার্ল্ড অ্যাওয়ার্ড পেল বাংলাদেশের বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রকল্প। ১৭ নভেম্বর ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের হাতে এই পুরস্কার তুলে দেন আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন (আইটিউ) সভাপতি হাউলিন ঝাও।

‘বেটার সুনার, অ্যাকসেলেরেটিং আইসিটি ইনোভেশন টু ইমপ্রুভ লাইভস ফাস্টার’ স্লোগানে থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে আয়োজিত আইটিইউ মেলায় এ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

গ্লোবাল এসএমই অ্যাওয়ার্ড, থিমেটিক অ্যাওয়ার্ড, রিকগনিশন অব এক্সিলেন্স সার্টিফিকেট ও হোস্ট কান্ট্রি এসএমই অ্যাওয়ার্ড নামে চারটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেয়া হয়।

মেলায় সেরা উদ্ভাবনী প্রদর্শক হিসেবে রিকগনিশন অব এক্সিলেন্স সার্টিফিকেট ক্যাটাগরিতে পুরস্কার জেতে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট।

এবার বাংলাদেশি প্যাভিলিয়নে গ্রামীণফোন, বাংলালিংক, রবি, টেলিটকসহ দুটি এনটিটিএন ফাইবার অ্যাট হোম এবং সামিট কমিউনিকেশন্স অংশ নেয়।

বিটিআরসির জন্যে আলাদা স্টল রাখা হয়। বিটিআরসির স্টলে ছিল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর রেপ্লিকা।

এবারের আয়োজনে বিশ্বের ১০০টি দেশের প্রায় ৪ হাজার সরকারি কর্মকর্তা, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিখাতের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ অংশ নেন।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম ফেসবুকে জানান, ‘প্রথমবারের মতো আইটিইউ টেলিকম ওয়ার্ল্ডে বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন স্থাপন করে। এর মাধ্যমে গোটা বিশ্বকে আমরা বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ খাতের অগ্রগতি সম্পর্কে জানাতে সক্ষম হয়েছি।’

প্রসঙ্গত, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট বাংলাদেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ প্রকল্প। এটি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন কর্তৃক বাস্তবায়িত হবে। যার উৎক্ষেপনের খরচ ৩ হাজার ২৪৩ কোটি টাকা।

এর মধ্যে বাংলাদেশ সরকার ১ হাজার ৫৫৫ কোটি টাকা নিজেদের তহবিল থেকে এবং বাকি ১ হাজার ৬৮৮ কোটি টাকা বিদেশি সংস্থার কাছ থেকে ঋণ হিসাবে নেওয়া হবে।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট