বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করলে পরিণাম হবে ভয়াবহ ।। সিলেটে যুবদলের হুঁশিয়ারী

প্রকাশিত: ১০:০৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৮, ২০১৬

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করলে তার পরিণাম হবে ভয়াবহ। নেত্রীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জনগণ মেনে নেবে না। বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করলে সরকারের পতন ত্বরান্বিত হবে বলে উল্লেখ করেছেন সিলেট জেলা যুবদল নেতৃবৃন্দ।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারপার্সন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে সারাদেশে যুবদলের প্রতিবাদ কর্মসূচির অংশ হিসেবে শুক্রবার বিকেল ৩টায় সিলেট জেলা যুবদলের উদ্যোগে রেজিস্টারি মাঠ থেকে বের হওয়া মিছিল নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে জিন্দাবাজার পয়েন্টে এসে এক সমাবেশে মিলিত হয় ।

সিলেট জেলা যুবদলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নিজাম ইউ জায়গীরদারের পরিচালনায় উক্ত বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় যুবদলের সহ-সভাপতি ও সিলেট জেলা যুবদলের সভাপতি আব্দুল মান্নান বলেন, অগণতান্ত্রিক ও অবৈধ ভাবে ক্ষমতা আঁকড়ে থাকা নব্য স্বৈরাচার আওয়ামী লীগ তাদের অপকর্ম ঢাকতে এবং বাকশালী কায়দায় ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করণের অপচেষ্টা করে যাচ্ছে। গণতান্ত্রিক বাংলাদেশের জনগণের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা এবং দেশব্যাপী বিচার বর্হিভূত হত্যা, গুম, খুনসহ আওয়ামী লীগ ও তাদের শরীকদের দেশব্যাপী নৈরাজ্য, লুন্ঠন ও দুর্নীতির প্রতিবাদে আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে গণতন্ত্র পুনঃউদ্ধার আন্দোলনকে দমানোর লক্ষ্যে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নামে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দায়েরের মাধ্যমে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করে এদেশের  গণতন্ত্রকামী ছাত্র যুব জনতার কন্ঠ স্তব্ধ করতে চায়।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে সিলেট মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মিফতাহ সিদ্দিকী অযোগ্য সরকারের পদত্যাগ দাবি করে সকলের অংশ গ্রহণে একটি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি জানান। একই সাথে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জারিকৃত গ্রেফতারী পরোয়ানা প্রত্যাহার ও কারাগারে আটক সকল নেতা-কর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।
একটি খোঁড়া হাস্যকর মামলায় বেগম খালেদা জিয়ার নামে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারীর তীব্র প্রদিবাদ জানিয়ে কেন্দ্রীয় যুবদলের সহ-সাধারন সম্পাদক ও সিলেট জেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক মামুনুর রশিদ মামুন বলেন অবিলম্বে গ্রেফতারী পরোয়ানা প্রত্যাহার না করলে খুনি শেখ হাসিনা সরকারের পরিনাম হবে ভয়াবহ। আজ থেকে যুবদলের নেতাকর্মীরা যে কোন কঠিন পরিস্থিতিতে প্রস্তুত থাকারও আহবান তিনি।
বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় যুবদলের সদস্য ও জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ছাদিকুর রহমান সাদিক, মহানগর যুবদল নেতা শামীম মজুমদার, জেলা যুবদলের প্রচার সম্পাদক আলী আহমদ হীরা, সহ-প্রচার সম্পাদক আব্দুল মালেক, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক সাহেদুল ইসলাম বাচ্চু, যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক আলাউদ্দিন আলাই, শাহপরান থানা যুবদলের আহবায়ক হাবিবুর রহমান হাবিব, ফরিদ উদ্দিন, ছাব্বির আহমদ, শাহ মাহমুদ আলী, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম-সম্পাদক মোস্তাকুর রহমান রুমন, জাকির হোসেন কয়েছ, জেলা ও মহানগর যুবদল নেতা মন্তাজ হোসেন মুন্না, সাহেদ আহমদ, আব্দুস সোবহান, তাজ উদ্দিন, মনির মুন্সি, সাইফুল ইসলাম সাইফুল, মাসুম আলী মাসুদ, ময়নুল ইসলাম মঞ্জু, সোনাহর আলী সোহেল, মকসুদুল করিম নুহেল, সামছুল ইসলাম টিটু, আশরাফ বাহার, শাহ আলম, হেলাল আহমদ, আনোয়ার হোসেন, রেদুওয়ান আহমদ, মুহিবুর রহমান বাবুল, নজরুল ইসলাম, আজাদ আহমদ, চান্দ আলী, সালেহ আহমদ, আব্দুল মালেক, রিয়াজ আহমদ, বাবরুল ইসলাম বাবুল, হেলাল সওদাগর, আলী আহমদ, দেলওয়ার হোসেন, ফখরুল ইসলাম, আবু সাঈদ হিরন, গোলাম কিবরিয়া, আব্দুল গফুর, শিপন চন্দ্র, মাসুম আহমদ লস্কর, সুন্দর আলী, আব্দুল মন্নান, কামরুল ইসলাম, জুনেদ আহমদ, হাবিবুর রহমান, এনামুল হক পাবেল, অহমেদ সত্তার সুমন, আতাউর রহমান রফিক, ইফতেখার হোসেন সুমন, ফজলু মিয়া, কাওছার আহমদ নামর, আলী ইমাম মেম্বার, মোনায়েম খান মুন্না, নাহিদ আলম দুলাল, রফিক দেওয়ান, মুক্তার আলী শুভ, আলাউদ্দিন, ইলিয়াস আলী, ইমরানুজ্জামান, আশারাফ আহমদ, সেবুল আহমদ, বাবুল মিয়া, আমির হোসেন হাজারী, গিয়াস উদ্দিন, রাসেল আহমদ, নুরুল হোসেন, সেলিম আহমদ, আবুল কাহের, সুজন আহমদ, আজিজুর রহমান লালন, আব্দুর রহিম, শাহরিন খোকন, আলমগীর আলম, মুকিত আহমদ, পারভেজ আহমদ, খসরু মিয়া, মিসাহ উদ্দিন, নাহিন আহমদ, শহিদ খান, আহমদ রেদুওয়ান টিপু, কামাল হোসেন, সিরাজুল ইসলাম মানিক, ইফজালুর রহমান, সাহিদ আহমদ, গেদা মিয়া, হোসেন আহমদ, মনির হোসেন, আজাদুর রহমান, ফয়সল আহমদ, হেলাল আহমদ, নুরুল ইসলাম সুজন, কামরুল ইসলাম, বলিক হোসেন, ইউনুস মিয়া, মখলিছ ফরিদ, রাসেল আহমদ, তানহিল আহমদ, সোহেল আহমদ, শাহীন আলী, সুরুজ মিয়া, সিমন আহমদ, শাহজাহান মিয়া, জয়নাল আহমদ, বাবুল আহমদ, জাকির হোসেন, জায়েদ আহমদ, তারেক আহমদ, মিলন আহমদ, রায়হানুল হক ইমন, নিজাম উদ্দিন, মোঃ আশিক, নজরুল ইসলাম, সালেক আহমদ, উজ্জল আহমদ, ফয়েজ আহমদ, লিটন আহমদ, গনি মিয়া, ইমন আহমদ, মাসুম পারভে তারেক, শাহ সাহেদ প্রমূখ। –বিজ্ঞপ্তি
  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট