ছিনতাই করতে গিয়ে ধরা খেলো পুলিশ

প্রকাশিত: ৪:০৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৮, ২০১৬

রাজধানীতে ডিম ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ৪৪ হাজার টাকা ছিনতাই করতে গিয়ে ধরা খেয়েছে পুলিশের এক সদস্য। শুক্রবার ভোরে কারওয়ান বাজার এলাকার সোনারগাঁও হোটেলের মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

কনস্টেবল লতিফুজ্জামান ডিএমপি ট্রাফিক জোনের উত্তর বিভাগের গুলশান জোনে কর্মরত। এ ঘটনায় শাহবাগ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

ঘটনার শিকার ডিম ব্যবসায়ী আবদুল বাসির মোনা তেজগাঁও ডিমের আড়তের শাহআলী ট্রেডার্স মালিকের ভাই। তিনি জানান, শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) ভোর ৫টার দিকে রাজধানীর লালবাগে ডিম সাপ্লাই দিয়ে টাকা নিয়ে তেজগাঁয় ডিমের আড়তে ফিরছিলেন তিনি। সঙ্গে ৪০ হাজার টাকা ছিল। যে ভ্যানে করে ডিম সাপ্লাই দেন সেই ভ্যানচালকও ছিলেন। এ সময় মোটর সাইকেল চালিয়ে পুলিশের কনস্টেবল লতিফুজ্জামান ও এক আনসার সদস্য কাওরান বাজার মোড়ে (কাঁঠালবাগানের দিকের রাস্তায়) তাদের পথ আটকায়।

মোনা বলেন, ‘তারা আমাদের জিজ্ঞেস করে ‘কই গেছিলি? গাঁজা খাস? পকেটে গাঁজা আছে? এ সময় আমি টাকা ও পকেটে থাকা চাবি বের করলে তারা টাকা টান দিয়া মোটরসাইকেল টান দেয়। আমি পেছন থেকে আনসারের ওই সদস্যকে জাপটে ধরি। মোটরসাইকেল পরে গেলে ‘ডাকাত ডাকাত’ বলে চিৎকার দেই। তবে পুলিশের পোশাক দেখে অনেকেই সাহায্যের জন্য আসতে চায়নি। পরে আশপাশের লোকজন ও দায়িত্বরত পুলিশ এসে শাহবাগ থানায় খবর দেয়। শাহবাগ থানা পুলিশ কনস্টেবলকে ধরে নিয়ে গেলেও আনসার সদস্য পালিয়ে যায়।’

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুবকর সিদ্দিক জানান, কনস্টেবল লতিফুজ্জামান যে ট্রাফিক জোনের উত্তর বিভাগে কর্মরত সে ব্যাপারে তারা নিশ্চিত হয়েছেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এই ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

রমনা জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) ইহসানুল ফেরদাউস জানান, ‘ভুক্তভোগীরা দুই ছিনতাইকারীর একজনকে আনসার সদস্য মনে করলেও আমরা খবর পেয়েছি তিনিও পুলিশের কনস্টেবল এবং ট্রাফিকের উত্তর বিভাগেই কর্মরত। তাকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট