সিলেটে নবান্ন উৎসব উদযাপিত

প্রকাশিত: ১:৪৪ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০১৬

সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মোঃ শহীদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, পহেলা অগ্রায়ণ নবান্ন উৎসব, বাঙ্গালী সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য একটি অংশ এ ঐতিহ্য ধরে রাখতে সরকারের আনতরিকতার শেষ নেই। নবান্ন চলে যায় কিন্তু কেউই বুঝতে পারে না যে নবান্ন আসছে কারন গ্রাম এলাকায় মাঠে ঘাটে যে ফসল চাষাবাদ হতো সেটি উৎসব মূখর পরিবেশে এক সময় আমাদের দেশে উদযাপিত হতো। পিঠা, পায়েশ, নাড়ু সহ বিভিন্ন জাতের পিঠা তৈরি হত। সে ইতিহাস ঐতিহ্য আমরা হারিয়ে ফেলছি। আমরা এখন পাশ্চাত্যের সংস্কৃতির দিকে অগ্রসর হচ্ছি যার ফলে নিজেদের ঐতিহ্যকে ভূলে যাচ্ছি। আমরা আমাদে ঐতিহ্যকে ভূলে গেলে চলবে না। আমাদের নতুন প্রজন্মের জন্যে এ ঐতিহ্যের ধারা রেখে যেতে হবে।
১৫ নভেম্বর মঙ্গলবার দুপুরে কবি নজরুল অডিটোরীয়াম মুক্ত মঞ্চে সারা দেশের ন্যায় সিলেটে নবান্ন উৎসবের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপরোক্ত কথা গুলো বলেন তিনি।
শিশুএকাডেমীর শিশু সংগঠক সাইদুল ইসলামের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিলেট যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ- পরিচালক মোঃ আলাউদ্দিন, জাতীয় যুব পদক প্রাপ্ত রুনা বেগম, আব্দুর রহমান। পিঠা উৎসবে স্টল দাতাদের মধ্যে সুরভী সমাজকল্যাণ সমিতির সভানেত্রী শিরীনা আক্তার চৌধুরী, নূরানী সমাজকল্যান উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি ফাতেমা জন্নাত, চাষী ফুডস, সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, মোনালিসা লেডিস টেইলারস আন্ড ট্রেনিং সেন্টার, জয়তুন হস্ত শিল্প ও সেলাই প্রশিক্ষন সেন্টার, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, মহিলা বিষয়ক অফিস, ইনক্লুসিভ স্কুল আন্ড কলেজ, বন্ধু ওয়েল ফেয়ার সোসাইটি।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট