মোবাইল-কম্পিউটার জীবাণুমুক্ত রাখতে যা করবেন

প্রকাশিত: ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০১৬

পাবলিক টয়লেট ব্যবহার করতে গিয়ে অনেকেরই মনে হয় সেখানে কত জীবাণু আছে। কিন্তু স্মার্টফোন বা কম্পিউটারে লুকিয়ে থাকা হাজারো জীবাণু আমাদের অসুস্থ করতে পারে সেকথা কিন্তু মনে হয় না। জেনে নিন যন্ত্রগুলোকে জীবাণুমুক্ত রাখার উপায়।

কম্পিউটার পরিস্কার

অফিসের কম্পিউটার সপ্তাহে একবার আর বাসার কম্পিউটার মাসে একবারই যথেষ্ট। পরিস্কার করতে কী-বোর্ডকে উল্টিয়ে দিন, এতে ভেতরে ধুলো-বালি, খাবারের কণা বা অন্য কিছু থাকলে বেরিয়ে যাবে। বিশেষ কাপড় বা ভেজা টিস্যু পাওয়া যায় তা দিয়ে কী-বোর্ড এবং কম্পিউটারের স্ক্রিন ধীরে ধীরে মুছে ফেলুন। তাছাড়া কাজ শুরুর আগে হাত দুটো ‘হ্যান্ড স্যানিটাইজার’ দিয়ে মুছে নিলেও কিন্তু ব্যাকটেরিয়ার থেকে কিছুটা নিশ্চিন্ত থাকা যায়।

মোবাইল এবং ট্যাবলেট

প্রতিদিন মাইক্রোফাইবার রুমাল বা কাপড় দিয়ে আপনার মোবাইল এবং ট্যাবলেটটি কোনো চাপ ছাড়া আস্তে আস্তে মুছে নিন। যন্ত্রগুলোতে থাকা ছোট ছোট ছিদ্রগুলো ‘টুথপিক’ দিয়ে খুব সতর্কতার সাথে পরিস্কার করে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত পরিস্কার রাখলে ব্যাকটেরিয়া জমার কোনো সুযোগ থাকবে না।

টেলিফোন

টেলিফোনের ডায়ালে যে শুধু জীবাণু জমে, তা কিন্তু নয়। ফোন কানে লাগিয়ে কথা বলার সময় কান এবং মুখ থেকে যাওয়া নানা ব্যাকটেরিয়া টেলিফোনে জমে। তাই সপ্তাহে একদিন টেলিফোন ভালো করে মুছতে হবে হালকা ভেজা কাপড় দিয়ে। আর ছিদ্রগুলো সাবধানতার সাথে ‘টুথপিক’ দিয়ে মুছবেন।

কম্পিউটারের মাউস

কম্পিউটারের মাউসেও জীবাণু জমে থাকে। সেজন্য পরিস্কার করার সময় মাউসের চাকাটি একটু ঘুরাতে থাকুন আর পরিস্কার করুন। পুরো মাউসটা ভালো করে মুছে নিলে কাজেরও অনেক সুবিধা হবে, যা পরে নিজেও লক্ষ্য করবেন।

টিভি রিমোট

প্রায় প্রতিদিনই সকলে কম-বেশি টিভি দেখে থাকেন এবং বাড়ির সকলেই টিভির রিমোটে হাত দেন। তাই মাসে অন্তত একবার রিমোটটি পরিস্কার করা উচিত। গ্লাস বা কাঁচ মোছার তরল খানিকটা কাপড়ে লাগিয়ে হালকাভাবে রিমোটটি মুছে তারপর শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। আর কেউ যদি আরো ভালো করে মুছতে চান, তাহলে রিমোট থেকে ব্যাটারি বের করে ভেতরটাও পরিস্কার করা যেতে পারে।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট