সাকিবের বলে চার ছক্কা মাশরাফির

প্রকাশিত: ১১:৪৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০১৬

ঢাকা ডায়নামাইটসের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের বলে চার-চারটি ছক্কা হাঁকিয়েও দলকে পরাজয়ের হাত থেকে রক্ষা করতে পারেনি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়ক মাশরাফি।

আজ ৯ নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নামেন মাশরাফি। জয়ের জন্য তখন প্রয়োজন ৫৪ বলে ১২১ রান। নেমেই মারমুখী মাশরাফি। দ্রুত রান তুলতে থাকেন।

১৯তম ওভারে বল হাতে আসেন ঢাকা ডায়নামাইটসের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। মাশরাফি তখন ২৮ বলে ২৩ রান নিয়ে স্ট্রাইকিং প্রান্তে। ওই ওভারে সাকিবকে চার-চারটি ছক্কা হাঁকান। তাতে মাশরাফির রান বেড়ে দাঁড়ায় ৩৪ বলে ৪৭।

অবশ্য ২০তম ওভারের দ্বিতীয় বলে আউট হয়ে যান মাশরাফি। তার ঝড়ো ইনিংসও দলকে পরাজয়ের হাত থেকে রক্ষা করতে পারেনি। কেবল ব্যবধান কমিয়েছে। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৬১ রান পর্যন্ত করতে পারে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। তাতে ৩৩ রানে জয় পায় ঢাকা। লিগে ঢাকার এটা তৃতীয় জয়। আর কুমিল্লার চতুর্থ হার। চার ম্যাচে মাঠে নেমে একটিতেও জয় পায়নি কুমিল্লা।

ব্যাট হাতে কুমিল্লার ইনিংসে সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেন মাশরাফি। তার ইনিংসে ৫টি ছক্কা ও ২টি চারের মার ছিল। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২০ রান করেন সোহেল তানভীর। ৮ বলে ১৮ রান করে অপরাজিত থাকেন সাইফউদ্দিন।

বল হাতে ঢাকার মোহাম্মদ শহীদ ৩টি ও সেকুজি প্রসন্ন ২টি উইকেট নেন।

সোমবার মিরপুরে দিনের দ্বিতীয় এই ম্যাচে টস জিতে ঢাকা ডায়নামাইটসকে ব্যাটিংয়ে পাঠান কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে বিপিএলের চলতি আসরের সর্বোচ্চ রান করেছে ঢাকা। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৯৪ রান করেছে ঢাকা ডায়নামাইটস। জয়ের জন্য কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে করতে হবে ১৯৫ রান।

ব্যাট হাতে ঢাকার মেহেদী মারুফ ৬০ রান করেছেন। তার ইনিংসে ৪টি চার ও ৩টি ছক্কার মার ছিল। ৫টি চারের মারে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন নাসির হোসেন।

এ ছাড়া সাকিব আল হাসানের ১৩ বলে ২৪ ও সাঙ্গাকারার ২০ রানে ভর করে ১৯৪ রানের বড় সংগ্রহ পায় ঢাকা।

বল হাতে কুমিল্লার রশিদ খান ৩টি উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট নেন আল আমিন ও রায়ান টেন ডেসকাট।

  •