খালেদা জিয়াকে ক্ষমতায় আসতে দেয়া হবে না : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৯:৪১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৫, ২০১৬

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, গণতন্ত্র চাইলে ‘জঙ্গিদের’ ধ্বংস করতে হবে। কোনো অবস্থাতেই জঙ্গির পৃষ্ঠপোষক বিএনপি ও এর চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ক্ষমতায় আসতে দেয়া যায় না। কোনো অবস্থাতেই তাদের চক্রান্ত মেনে নেয়া যায় না। ‘জঙ্গিরা’ ধ্বংস হলেই বাংলাদেশ নিরাপদ হবে।

‘জঙ্গি নির্মূল কর, জঙ্গি সঙ্গী বর্জন ও বিচার কর’ শীর্ষক দাবি নিয়ে মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয় যুব জোটের মানববন্ধনে তিনি এ সব কথা বলেন।

ইনু বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আবারো নির্বাচন দেয়ার দাবি জানিয়েছেন। কিন্তু কয়েকদিন আগেই এরা আগুন যুদ্ধ, বোমাবাজি সন্ত্রাসের মাধ্যমে একটি নির্বাচিত সরকারকে সরাতে চেয়েছিল। কয়েকদিন আগে ‘জঙ্গি’রা গুপ্তহত্যা চালিয়েছিল। তবে সরকার এই ‘জঙ্গিদের’ দক্ষতার সাথে মোকাবেলা করেছে।

তিনি বলেন, সরকার একটার পর একটা ঘাঁটি ধ্বংস করেছে। এতে করে ‘জঙ্গিরা’ হয় ধ্বংস হয়েছে অথবা কারাগারে নিক্ষেপ হয়েছে। তারা পিছু হটেছে। আর এই অবস্থায় বেগম খালেদা জিয়া আবার গণতন্ত্রের টুপি পরে মাঠে নামার চেষ্টা করেছেন।

তিনি বলেন, ‘উন্নয়ন শান্তি নিরাপত্তার স্বার্থে ‌জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ সিদ্ধান্ত নিতে হবে। জঙ্গি উৎপাদন ও এর কারখানা চিরতরে বন্ধ করতে হবে। আর এর উৎপাদনের কারখানা হচ্ছে বিএনপি।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, জঙ্গিবাদ উন্নয়ন প্রগতি ও শান্তির প্রধান শত্রু। কিন্তু বিএনপি বারবার প্রমাণ করেছে তারা যুদ্ধাপরাধী, জঙ্গি ও আগুন যুদ্ধের নেত্রী। তারা এদের সঙ্গী বলেই প্রমাণিত হয়েছে। এটার তারা প্রমাণ করেছে কখনো বক্তব্য দিয়ে। কখনো বা বিবৃতি দিয়ে। বিএনপি নেত্রী গণতন্ত্রের টুপি পরে আগুন যুদ্ধ ও চক্রান্ত করতে চান।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি গণতন্ত্রের ধার ধারেন না। তাই জঙ্গি নির্মূলে খালেদা জিয়াকে আইনের আওতায় এনে বিচার করতে হবে।’

কর্মসূচিতে জাসদের নেতৃবৃন্দের মধ্যে মীর হোসাইন আকতার, আবদুল মতিন মিয়া প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশে অন্য বক্তারা আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটি ১৪ দলীয় জোটকে আরো বেগবান করাসহ জঙ্গি নির্মূলের লড়াইকে চূড়ান্ত বিজয়ের পথে পরিচালিত করতে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

  •