বিশ্বনাথে টাকা আত্মসাৎ মামলায় কৃষকলীগ নেতা গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৩:৫৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০১৬

পুলিশে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে টাকা আত্মসাৎ ও প্রতারণার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের তবলপুর গ্রামের মৃত ছুনুফর আলীর পুত্র ও ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি রইছ আলীকে (৪৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। রবিবার তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানা যায়।
জানা গেছে, বিশ্বনাথ উপজেলার মুফতির বাজারের পল্লী চিকিৎসক ও ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানার হামির্দি পুর্বপাড়া গ্রামের মো. কামরুজ্জামানের ভাগ্নেকে পুলিশে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে বিশ্বনাথ উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের তবলপুর গ্রামের ছুনু মিয়ার পুত্র রইছ আলী ৬ লক্ষ টাকা নেন। ২০১৫ সালের ২০ নভেম্বর স্ট্যাম্পের মাধ্যমে এই টাকা গ্রহন করেন রইছ আলী। ঐ চুক্তিনামায় স্বাক্ষী হিসেবে রয়েছেন তবলপুর গ্রামের মুক্তিযুদ্ধা ছৈইফ উল্লাহ, মুক্তিযুদ্ধা আলকাছ আলী সহ অনেকেই। চুক্তিনামা অনুযায়ী পুলিশে চাকুরী দিতে ব্যর্থ হওয়ায় রইছ আলী গত ১২ এপ্রিল ৬ লাখ টাকার মধ্যে ২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা ফেরত দেন এবং বাকী টাকা ফেরত দিতে এক সপ্তাহের সময় চেয়ে নেন। কামরুজ্জামান পরবর্তীতে রইছ আলীর কাছে টাকা চাইলে সে উত্তেজিত হয়ে অশ্লীল ভাষায় গালি গালাজ করে। এবিষয়ে গত ১১ মে রইছ আলীকে অভিযুক্ত করে বিশ্বনাথ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন কামরুজ্জামান। থানা পুলিশ অভিযোগটি আমলে না নেওয়ায় পুলিশের সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মিজানুর রহমানের স্বরনাপন্ন হন কামরুজ্জামান। তখন বিশ্বনাথ থানা পুলিশকে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য লিখিতভাবে নির্দেশ প্রদান করেন ডিআইজি। বিশ্বনাথ থানা পুলিশ অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড না করায় পরবর্তীতে কামরুজ্জামান ফরিদপুর জেলা আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। সিআর মামলা নং ২০৬/১০১৬ইং। মামলা দায়েরের পর আদালত আসামী রইছ আলীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট