আন্দোলনকারীদের রক্তাক্ত পন্থায় দমন করছে সরকার : ফখরুল

প্রকাশিত: ১০:৪৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৬

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বর্তমান জনবিচ্ছিন্ন সরকার এখন কেবল বিরোধী দলগুলোর আন্দোলন সংগ্রামে নয়, বরং দেশের স্বার্থে ন্যায্য দাবি আদায়ের জন্য শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলনকারীদেরকেও রক্তাক্ত পন্থায় দমন করছে।

সুন্দরবনের কাছে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্প বাতিলের দাবিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে লেখা খোলা চিঠি নিয়ে ঢাকায় দেশটির হাই-কমিশন অভিমুখে রওয়ানা হওয়া তেল-গ্যাস-বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির মিছিলে হামলার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন মির্জা ফখরুল।

মঙ্গলবার বিএনপির সহ-দপ্তর সম্পাদক মো. তাইফুল ইসলাম টিপুর স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।

আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বেপরোয়া জলকামান ও কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপে তেল-গ্যাস-বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ত্রিশজন নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, বর্তমান শাসকগোষ্ঠীর নির্মমতায় এদেশের মানুষের জীবন এখন ওষ্ঠাগত। সহমর্মিতা, সহানুভূতি কিংবা আলাপ-আলোচনা উপেক্ষা করে এবং ন্যায্য দাবি ও গণতান্ত্রিক অধিকারের প্রতি তোয়াক্কা না করে মানুষের ওপর নিষ্ঠুর নির্যাতন চালানো হচ্ছে। এটি গণতন্ত্রহীনতার পরিচয়।

ফখরুল ইসলাম বলেন, দেশে গণতান্ত্রিক অধিকার ভূলুণ্ঠিত বলেই আজ তেল-গ্যাস-বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির মিছিলে হামলা চালানো হলো। দেশের মঙ্গলের জন্য ন্যায্য দাবি আদায়ের লক্ষ্যে তেল-গ্যাস-বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির নেতাকর্মীদের মিছিলে সরকারের আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হামলা নিঃসন্দেহে অমানবিক নিষ্ঠুরতা।

তিনি বলেন, ‘তেল-গ্যাস-বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির মিছিলের ওপর আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ন্যক্কারজনক হামলার ঘটনায় কী ভাষায় নিন্দা জানাবো তা আমার জানা নেই।’

অবিলম্বে তেল-গ্যাস-বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির মিছিলের ওপর হামলাকারীদের আইনের আওতায় এনে সুষ্ঠু বিচারের জোর দাবি জানিয়ে তিনি আহত নেতাকর্মীদের আশু সুস্থতা কামনা করেন।

  •