থাইল্যান্ডের রাজা ভুমিবল মারা গেছেন

প্রকাশিত: ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০১৬

বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘ সময় সিংহাসনে থাকা থাইল্যান্ডের রাজা ভুমিবল আদুলিয়াদে ৮৮ বছর বয়সে মারা গেছেন। গত কদিন ধরে রাজা ভুমিবল গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ছিলেন।
রাজপ্রাসাদ সুত্র জানায়, থাইল্যান্ডের স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার বেলা ৩টা ৫২ মিনিটে তিনি শ্রীরাজ হাসপাতাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বিবৃতিতে বলা হয়, তার ইহলোক ত্যাগ ছিল শান্তিময়। রাজা ভূমিবলের মৃত্যুতে দেশটির পার্লামেন্টে বিশেষ সভার আয়োজন করা হয়।
দেশটিতে গণতান্ত্রিক শাসনব্যাবস্থা প্রবর্তনের পরও তার ভূমিকা ছিল চোখে পড়ার মত। থাইল্যান্ডের নানা রাজনৈতিক শঙ্কটে তার হস্তক্ষেপ এবং পরামর্শ পরিস্থিতি উত্তরণে সাহায্য করে। অবশ্য গত কয়েক বছর যাবত তিনি বার্ধক্যজনিত নানা শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন। ফলে জনসমক্ষেও আসছিলেন কম।
তিনি এমন এক সময়ে দেহত্যাগ করলেন যখন দেশটিতে চলছে সামরিক শাসন। ২০১৪ সালে এক অভ্যূত্থানের মধ্য দিয়ে সামরিক সরকার থাইল্যান্ডের ক্ষমতাগ্রহণ করে।
এর আগে গত ৯ অক্টোবর রোববার রাজপ্রাসাদ থেকে জানানো হয়, রাজার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। এরপর থেকেই তার বাসভবনের সামনে জমায়েত হন অসংখ্য মানুষ।
১৯২৭ সালের ৫ ডিসেম্বর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জন্মগ্রহণ করেন রাজা ভূমিবল। ১৯৪৬ সালে তাঁর রাজ্যাভিষেক ঘটে। চক্রি রাজবংশের নবম রাজা হিসেবে অধিষ্ঠিত ভূমিবলকে দেশটির অধিকাংশ নাগরিকই মহারাজা হিসেবে সম্বোধন করতেন।
১৯৪৬ সাল থেকে অর্থাৎ গত সাত দশক ধরে থাই জনগণ তাঁকে জাতীয় ঐক্যের প্রতীক হিসাবে সম্মান করেছেন। আশঙ্কা রয়েছে, রাজার মৃত্যুতে থাইল্যান্ডে নতুন রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হতে পারে।

  •