হামলাকারী বদরুলের ফাঁসির দাবিতে উত্তাল এমসি কলেজ, সড়ক অবরোধ

প্রকাশিত: ১:২৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৪, ২০১৬

সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিসকে কুপিয়ে আহত করার প্রতিবাদে ও হামলাকারী বদরুলের ফাঁসির দাবিতে উত্তাল এমসি কলেজ ক্যাম্পাস।
মঙ্গলবার সকাল থেকেই এমসি কলেজের ছাত্র ছাত্রীরা বদরুলের ফাঁসির দাবিতে ক্লাস ছেড়ে ক্যাম্পাসে মিছিল বের করেন। এরপর তারা সিলেট-তামাবিল মহাসড়কে অবস্থান নেন।
দুপুর ১২টার দিকে এমসি কলেজ সংলগ্ন টিলাগড়ে সিলেট-তামাবিল সড়কে দু’টি প্রাইভেটকারসহ ৭টি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়।
এদিকে শিক্ষার্থীদের ভাঙচুরের খবরে এমসি কলেজের প্রিন্সিপাল নিতাই চন্দ্র চন্দ রাস্তায় এসে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে ফিরিয়ে নিয়ে যান।
দুপুরে এমসি কলেজের প্রিন্সিপাল নিতাই চন্দ্র চন্দ সাংবাদিকদের বলেন, ‘ছাত্ররা উত্তেজিত হয়ে উঠলে তাদের ধমকে কলেজ ক্যাম্পাসে ফিরিয়ে আনা হয়। হামলাকারীর কঠোর শাস্তির জন্য প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলার আশ্বাস পেয়ে শিক্ষারা ক্যাম্পাসে ফিরে আসে।’
সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের শাহপরান (রহ.) থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজালাল মুন্সি জানান, বিক্ষুব্ধ ছাত্ররা কয়েকটি গাড়িতে হামলার চেষ্টা চালিয়েছে। গাড়ির লুকিং গ্লাস ভাঙচুর করেছে।
উলে­খ্য, সোমবার বিকেলে সিলেটের এমসি কলেজে পরীক্ষা দিয়ে বের হওয়ার পর শাবি ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলম সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিসকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। এ সময় সাধারণ শিক্ষার্থীরা হামলাকারী বদরুলকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় খাদিজা আক্তার নার্গিসকে প্রথমে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। একাধিক অস্ত্রোপচার শেষেও তার অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় রাতেই তাকে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে খাদিজা লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন বলে জানা গেছে।
এদিকে, গণধোলাইয়ে আহত শাবি ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল ইসলাম ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পুলিশী প্রহরায় চিকিৎসাধীন বলে জানিয়েছেন শাহপরাণ থানার ওসি শাহজালাল মুন্সি।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট