তামিমের অর্ধশতক, ২০ ওভারে দলীয় সংগ্রহ ৯৭/১

প্রকাশিত: ৪:১১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১, ২০১৬

ওয়ানডেতে ক্যারিয়ারের ৩৪তম অর্ধশতক করেছেন তামিম ইকবাল। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৮০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তিনি।

দলীয় ২৩ রানের মাথায় সৌম্য সরকারের বিদায়ের পর সাব্বির রহমানকে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখছেন তামিম ইকবাল। সর্বশেষ ২০ ওভারে এক উইকেটে দলীয় সংগ্রহ ৯১ রান। তামিম ৫১ ও সাব্বির ৩৫ রানে ব্যাট করছেন।

১১ বলে ১১ রান করে ফিরে যান সৌম্য সরকার। ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে মিরওয়েস আশরাফের বলে মোহাম্মদ শাহজাদের গ্লাভসবন্দি হন তিনি।

মোহাম্মদ নবির প্রথম ওভারটি মেডেন খেলেন তামিম ইকবাল। অফ স্পিনারের পরের ওভারের প্রথম বলটি ছিল শর্ট। পুল করতে গিয়ে সহজতম ক্যাচ দেন তামিম ইকবাল। মিডঅনে দুই হাতে সেই ক্যাচ তালুবন্দি করতে পারেননি অধিনায়ক আসগর স্তানিকজাই। সেই সময়ে ১ রানে ব্যাট করছিলেন তামিম।

শনিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। খেলা শুরু হয় দুপুর আড়াইটায়।

সিরিজ নির্ধারণী এই ম্যাচে বাংলাদেশ দলে দুটি পরিবর্তন এসেছে। দলে ফিরেছেন পেসার শফিউল ইসলাম ও বাঁহাতি স্পিনার মোশাররফ হোসেন রুবেল।

বাদ পড়েছেন দুই ম্যাচে ১ উইকেট পাওয়া বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। আর তৃতীয় ওয়ানডের জন্য ঘোষিত স্কোয়াডে ছিলেন না প্রথম দুই ম্যাচ খেলা পেসার রুবেল হোসেন।

স্কোয়াডে থাকলেও কোনো সিরিজের কোনো ম্যাচ খেলা হল না অলরাউন্ডার নাসির হোসেনের। তিন ম্যাচের সিরিজে রয়েছে ১-১ সমতা।

টানা ষষ্ঠ সিরিজ এবং ওয়ানডেতে নিজেদের শততম জয়ের লক্ষ্যে খেলবে বাংলাদেশ। অন্যদিকে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম সিরিজ জয়ের হাতছানি আফগানিস্তানের সামনে। অধিনায়ক আসগর স্তানিকজাই মনে করেন, সিরিজ জিতলে তা হবে তাদের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে বড় অর্জন।

আফগানিস্তান দলে পরিবর্তন একটি। পেসার নাভিন-উল-হকের জায়গায় এসেছেন সামিউল্লাহ শেনওয়ারি। রশিদ খান ও রহমত শাহকে নিয়ে আফগান একাদশে তাই লেগ স্পিনার তিন জন।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), সাকিব আল হাসান, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, সাব্বির রহমান, মোশাররফ হোসেন রুবেল, মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), তাসকিন আহমেদ, শফিউল ইসলাম।

আফগানিস্তান একাদশ: মোহাম্মদ শাহজাদ (উইকেটরক্ষক), নওরোজ মঙ্গল, রহমত শাহ, হাসমতউল্লাহ শাহিদী, আজগর স্তানিকজাই (অধিনায়ক), মোহাম্মদ নবী, নজিবুল্লাহ জাদরান, রশিদ খান, মিরওয়াইজ আশরাফ, দৌলত জাদরান, সামিউল্লাহ সেনওয়ারি।

  •