দক্ষিণ সুরমায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কর্তন করে স্ত্রীর পলায়ন

প্রকাশিত: ৯:২০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৬

সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কর্তন করে পালিয়ে গেছেন স্ত্রী আশা বেগম (২৯)। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ভোরে এ ঘটনাটি ঘটে।
গুরুতর আহত অবস্থায় স্বামী শাহরিয়ার হোসেন দুর্জয়কে (৩৬) (পরিবর্তিত নাম) উদ্ধার করে তার ছোট ভাই প্রদীপ দাস সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

জানা গেছে- দক্ষিণ সুরমার জৈনপুরে ফারুক মিয়ার বাসায় ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছিলেন শাহরিয়ার হোসেন দুর্জয়। তিনি সিলেটের গোলাপগঞ্জের বাঘা লালননগর এলাকার সুধীর দাসের ছেলে। তিনি ভালোবেসে আশা বেগমকে বিয়ে করে শাহরিয়ার হোসেন দুর্জয় নাম ব্যবহার করে জৈনপুর এলাকায় বসবাস করে আসছিলেন। মূলত তার নাম বিধান দাস। তাদের ৬ বছর বয়সী একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। তবে তাদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রতিনিয়তই ঝগড়া হতো।

আজ বৃহস্পতিবার ভোরে তাদের মেয়ের চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে আসেন। পরে দুর্জয়ের ছোট ভাই প্রদীপ দাস এসে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে উদ্ধার করে ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে যান। দুর্জয় ওসমানী হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

দুর্জয় ওরফে বিধান দাসের ছোট ভাই প্রদীপ দাস জানিয়েছেন- এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি (তদন্ত) সাহাবুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে উত্তরপূর্বকে জানান- পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ব্যাপারে এখনো কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট