দক্ষিণ সুরমায় আগ্নেয়াস্ত্র ও ইয়াবাসহ আটক ১০

প্রকাশিত: ২:০০ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৬

সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার পিরোজপুরে অভিযান চালিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র ও ইয়াবাসহ ১০ জনকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার দিবাগত রাত সোয়া ১২টায় পিরোজপুরের কয়েছ আহমদের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অস্ত্র ও মাদকসহ তাদের আটক করা হয়।
আটককৃতরা হলো দক্ষিণ সুরমার পিরোজপুর গ্রামের মৃত ময়না মিয়ার পুত্র কয়েছ আহমদ ওরফে লেংড়া কয়েছ (৪৬), বরইকান্দির আজিজুর রহমানের পুত্র হোসেন আহমদ (২০), বরইকান্দি কাজিরখলার আফজাল আলীর পুত্র তারেক (১৯), বলদীর জয়নুর মিয়ার পুত্র আলীম উদ্দিন (২৮), খোজারখলার সৈয়দ মিয়ার পুত্র পাখি মিয়া (৪০), জালালাবাদ থানার সুনাতলা গ্রামের তেরা মিয়ার পুত্র সুমন (৩০), শাহপরান থানার শিবগঞ্জ সোনারপাড়ার বাসিন্দা গোলাম রব্বানীর পুত্র পারভেজ কামরান (২৩), পাঠানটুলা ব্লক ই এর ৩ নং বাসার বাসিন্দা সায়েস্তা মিয়ার পুত্র ফজলে রাব্বী(২৩), দক্ষিণ সুরমার বলদী গ্রামের সুবা মিয়ার পুত্র সাহেদ মিয়া(৪৬) ও পিরোজপুর গ্রামের ময়না মিয়ার পুত্র লায়েছ আহমদ (৩৮)।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পিরোজপুরের কয়েছ আহমদের বসত ঘরে অভিযান চালানো হয়। অভিযান কালে কয়েছ আহমদের ঘরের দক্ষিণের কক্ষে খাটের নীচে একটি প্লাস্টিকের বস্তা দিয়ে মোড়ানো বাট, বডি, ব্যারেলসহ অনুমান ৮৫ সেন্টিমিটার লম্বা শর্টগান জাতীয় দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র ও ৭৯ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।
আসামী কয়েছ আহমদ আগ্নেয়াস্ত্র শর্টগানটি তার এবং দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা ব্যবসা করছে বলে স্বীকার করেছে। নেশা জাতীয় ট্যাবলেট ইয়াবা খোজারখলার সেলিম এর পুত্র সুমন (১৯), সেলিম (৫০), ইমন (২০) এর কাছ থেকে পাইকারী কিনে সিলেট শহরের বিভিন্ন মাদকসেবীর কাছে খুচরা বিক্রি করত। উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য প্রায় ১৫ হাজার ৮শ টাকা।
অভিযানে নেতৃত্ব দেন মহানগর গোয়েন্দা শাখা’র পুলিশ পরিদর্শক শিবেন্দ্র চন্দ্র দাশ। এ ব্যাপারে জড়িতদের বিরুদ্ধে দক্ষিণ সুরমা থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট