তাহিরপুরে যুবলীগ নেতাসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা

প্রকাশিত: ৫:৩১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৬

হাবিব সরোয়ার আজাদ : সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করা হয়েছে।
মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক বাদাঘাট ইউনিয়নের সোহালা গ্রামের প্রয়াত হাজি জালাল উদ্দিনের ছেলে হোসেন আহমদ, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান প্রয়াত হাজি আলা উদ্দিনের ছেলে আবু সায়েম, তারই সহোদর সেলিম আহমেদ।
মামলার বাদী অভিযুক্তদের চাচাত ভাই বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিনের সহোদর ইসলাম উদ্দিন।
এদিকে চাচাত ভাই কর্তৃক অপর তিন চাচাত ভাইয়ের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা দায়েরের বিষয়টি নিয়ে এলাকায় বেশ চাঞ্চলের সৃষ্টি হয়েছে।
মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, ভয়-ভীতি প্রদর্শন পূবর্ক মামলার অভিযুক্তরা তাদেরই চাচাত ভাই ইসলাম উদ্দিনের নিকট সোহালা নিজ বাড়িতে ফেরার পথে গ্রামের এতিম খানার সামনের রাস্তায় পথরোধ করে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ২০ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ২ লাখ টাকা চাঁদাদাবী করে। মামলায় অজ্ঞাত নামা আসামী করা হয়েছে আরো ৩/৪ জনকে।
মামলা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক হোসেন আহমদ বলেন, আমার চাচাত ভাই আফতাব বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে নির্বাচন করে। আমার আরেক চাচাত ভাই আবু সায়েম বিএনপির দলীয় প্রার্থী হিসাবে নির্বাচন করে। নির্বাচনে আফতাব জয়লাভ করে। আমি আমার কোন ভাইয়ের পক্ষেই নির্বাচনী প্রচারণায় না যাওয়ার ক্ষোভ থেকেই পারিবারীক আধিপত্য বিস্তার করাতে গিয়ে আফতাব তার ছোট ভাইকে দিয়ে আমাদের ওপর মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলা দিয়ে হয়রানী করাচ্ছে।
জেলা যুবলীগের সদস্য ও বাদাঘাট ইউপি চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন চাঁদাবাজির মামলা ও তাদের অভিযোগ প্রসঙ্গে বলেন, আমি নির্বানে প্রার্থী হওয়ার পর থেকেই তারা সংঘবদ্ধ ভাবে আমাকে নানা ভাবে হয়রানীর অপচেষ্টা করে আসছে, এমনকি নির্বাচনে জয়লাভ করার পরও তাদের প্রতিহিংসা ধমেনি, এখন আমার পরিবারের লোকজন ও ছোট ভাইদের হুমকি-ধামকি এবং চাঁদাদাবী করে আসছে। মামলা হয়েছে পুলিশী তদন্তেই প্রকৃত সত্য বের হয়ে আসবে।
মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই মুহিত মিয়া বৃহস্পতিবার জানান, মামলার তদন্তকাজ অব্যাহত আছে, তদন্তের স্বার্থে এ ব্যাপারে আপাতত কোন কিছু জানাতে তিনি অপারগতা প্রকাশ করেছেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট