বিএনপি এখন মুমূর্ষু : হাছান মাহমুদ

প্রকাশিত: ১২:৩৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৬

বিএনপি এখন মুমূর্ষু অবস্থায় আছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

শুক্রবার রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে স্বাধীনতা পরিষদের এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার আয়োজিত আলোচনা সভায় খালেদা জিয়ার বক্তব্যের সমালোচনা করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপি এখন মুমূর্ষু অবস্থায় আছে। মুমূর্ষু রোগী যেমন শেষ সময় বাঁচার জন্য গোঙানি দেয়। বিএনপি নেত্রীর বক্তব্য ছিল সেই রকম হতাশাগ্রস্ত মুমূর্ষু দলের গোঙানি। এই কারণেই তিনি উদ্ভট কাল্পনিক কথা বলেছেন।’

তিনি বলেন, ‘আমরা এতদিন ধরেই বলেছিলাম জঙ্গিদের লালন-পালন করছে বিএনপি। খালেদা জিয়ার বক্তব্যেই প্রমাণ হয়েছে জঙ্গিদের নাটেরগুরু তিনি। তাই সরকারের প্রতি অনুরোধ জনাবো জঙ্গিদের মূলোৎপাটনের জন্য বিএনপি নেত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলেই জঙ্গিবাদের মূলোৎপাটন সম্ভব হবে, নচেৎ সম্ভব নয়।’

জঙ্গিদের মোকাবেলায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে অভিনন্দন জানিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘পুলিশ দক্ষতার পরিচয় দিয়ে জঙ্গিদের মোকাবেলা করছে। প্রত্যেকটি অভিযানে পুলিশ জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের সুযোগ দিয়েছিল। কিন্তু তারা (জঙ্গি) মনে করে পুলিশের গুলিতে মারা গেলে তারা সরাসরি বেহশতে যেতে পারবে, সেখানে তাদের জন্য হুরপরীরা অপেক্ষা করছে। তাই গোলাগুলিতে তারা মারা যাচ্ছেন। এরা যে জঙ্গি তাদের পরিবারও স্বীকার করছে কিন্তু করছে না জঙ্গিদের নেত্রী বিএনপি খালেদা জিয়া।’

রামপাল নিয়ে খালেদা জিয়ার বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া মেট্রিক পাশ না করে পরিবেশ বিশেষজ্ঞ হয়ে গেছেন। রামপাল নিয়ে অনেক মতামত তিনি দিয়েছেন। জাতিকে খালেদা জিয়া ভুল ব্যাখ্যা, ভুল তথ্য উপস্থাপন করেছেন। এই বিশেষজ্ঞের মতামত গ্রহণ করলে দেশ ও জাতির কপালে দূর্ভাগ্য আছে।’

বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, ‘গতকাল আমরা আপনাদের মুমূর্ষু অবস্থায় দেখেছি। আমরা চাই আপনারা মুমূর্ষু অবস্থা কাটিয়ে কোমর সোজা করেন দাঁড়ান। এজন্য দায়ী বেগম খালেদা জিয়াকে আপনাদের দল থেকে বাদ দিতে হবে। আর আগামী প্রতিষ্ঠাবাষির্কীতে কোমর সোজা করে দৌড়াতে না পারলেও যেন হাঁটতে পারেন সেই ব্যবস্থা করেন।’

আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন- ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির উপাচার্য আব্দুল মান্নান চৌধুরী, জাতিসংঘে বাংলাদেশের নিযুক্ত সাবেক রাষ্ট্রদূত এ কে আব্দুল মোমেন, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা।

  •