সিলেট নগরীর উপশহরে ছাত্রলীগ-পুলিশ সংঘর্ষ : গুলিবিদ্ধ ৬

প্রকাশিত: ১:৩৭ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৩০, ২০১৬

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আবারো উত্তপ্ত সিলেট নগরীর উপশহর। জেলা যুবলীগ নেতা শামীম ইকবাল ও দুলাল আহমদের অনুসারিদের মধ্যে এ ঘটনাটি ঘটে।

সোমবার রাত সাড়ে ১০টায় উপশহরের এবিসি পয়েন্টে এ ঘটনাটি ঘটে । এদিকে পুলিশের সাথে শামীম ইকবালের অনুসারিদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সময় পুলিশের গুলিতে ৬ জন গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

গুলিবিদ্ধরা হলেন- অন্তর, হৃদয়, নাঈম ও আলম। তাদেরকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এরমধ্যে একজনের শারীরিক অবস্থা অাশংকাজনক বলে জানা যায়।

জানা যায়- যুবলীগ নেতা দুলালের নেতৃত্বে ছাত্রলীগ, যুবলীগের নেতাকর্মীরা উপশহরের এবিসি পয়েন্টে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র ফেস্টুন ছেড়া নিয়ে যুবলীগ নেতা শামীম ইকবালসহ তার অনুসারিদের বিরুদ্ধে সোমবার রাত ১০টায় বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি উপশহরের রোজভিউ’র সামনে গিয়ে শেষ হয়।

পরবর্তীতে শামীম ইকবালে অনুসারিরা একত্রিত হয়ে মিছিল বের করতে চাইলে উপশহর এবিসি পয়েন্টে অবস্থানকারী পুলিশের সাথে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এসময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার জন্য শর্টগানের গুলি ছোড়লে নেতাকর্মীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

সিলেট জেলা যুবলীগ নেতা দুলাল আহমদ জানান, উপশহরে শামীম ইকবালের নেতৃত্বে বহিরাগতরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র ফেস্টুন ছিড়ে ফেলে। এর প্রতিবাদে উপশহরের ছাত্রলীগ, যুবলীগের নেতাকর্মীরা প্রতিবাদ মিছিল করে। মিছিল শেষে নেতাকর্মীরা যার যার বাসায় চলে গেলে শামীম ইকবালের অনুসারি পশ্চিম তেররতন হামলার চেষ্টা চালালে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে তাদেরকে ধাওয়া করলে তারা পালিয়ে যায়।

অপরদিকে জেলা যুবলীগ নেতা শামীম ইকবাল জানান- আমরাও আওয়ামীলীগের রাজনীতি করি আমাদের নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র ফেস্টুন ছিড়ে ফেলার কোন প্রশ্নই আসে না। এটা একটি কুচক্রি মহলের অপপ্রচার। দুলালের নেতৃত্বে আমাদের নেতাকর্মীদের উপর অর্তকিত হামলা চালানো হয়েছে। গুলিবিদ্ধ হয়ে আমাদের ৮-১০ নেতাকর্মী হাসপাতালে।

শাহপরাণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজালাল মুন্সির সাথে কয়েকবার মোবাইলফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট