সিলেটে বিআরডিবি’র মাঠ সংগঠকদের বিভিন্ন দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৬:২৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৯, ২০১৬

পল্লী জীবিকায়ণ প্রকল্প (বিআরডিবি) সিলেট বিভাগের মাঠ সংগঠকদের উদ্যোগে সোমবার (২৯ আগস্ট) সিলেট খাদিমনগর আঞ্চলিক কার্যালয়ের সামনে সকল কর্মচারীদের শতভাগ বেতন নিশ্চিতকরণ, পজীপের সকল কর্মচারীদের বিআরডিবি’র আওতাভুক্ত ও বিআরডিবিকে অধিদপ্তরে রূপান্তরিত করার দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন ও সিলেটের আঞ্চলিক প্রকল্প পরিচালক সুকুমার চন্দ্র দাস এর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

মৌলভীবাজার বিআরডিবি’র মাঠ সংগঠক মো. মোতালেব হুসেনের সভাপতিত্বে ও কমলগঞ্জের মাঠ সংগঠক আতাউর রহমানের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- দোয়ারাবাজার বিআরডিবির মাঠ সংগঠক এনামূল হক, রায়নগর-মোলভীবাজার বিআরডিবির মাঠ সংগঠক মো. তৌফিক আহমদ, জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জের মাঠ সংগঠক মো. রমজান আলী, হবিগঞ্জ সদর বিআরডিবি লুৎফুর রহমান, নবীগঞ্জ-হবিগঞ্জ মাঠ সংগঠক রহিদুল ইসলাম, সিলেট-জকিগঞ্জ মাঠ সংগঠক জহুরুল ইসলাম, ফজলে রাব্বি, সুনামগঞ্জ সদর জিলাল উদ্দিন, সোহেল, দ্বিপংকর, কামাল প্রমুখ।

মানববন্ধন শেষে স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়- বিগত ৮ মাস যাবত চাকুরীতে কর্মরত কিন্তু অদ্যবধি ১ মাসের বেতন ভাতা ব্যতিত আর কোনো বেতন ভাতা দেওয়া হয়নি। বেতন ভাতা না দেওয়ার ফলে প্রতিটি মাঠ সংগঠক পরিবার-পরিজন নিয়ে অতি কষ্টে দিনযাপন করছেন।

প্রত্যেক উপজেলার দায়িত্বরত কর্মকর্তা অফিস স্টাফ কর্তৃপক্ষের অনুমতি ব্যতিরেকে ১০০% বেতন ভাতা  নিয়ে নেন। কিন্তু মাঠ সংগঠকদের ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের অনুমতি লাগবে বলে জানান। মাঠ সংগঠকদের যোগদানপত্রে ২০% বা ১০% হিসেবে বেতন ভাতা পাওয়ার ব্যাপারে কোন উলে­খ ছিলনা। তাই প্রত্যেক সংগঠকদের দাবি ১০০% ভাতা নিশ্চিত করতে হবে। মানববন্ধন থেকে সরকার ও স্থানীয় কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

আঞ্চলিক প্রকল্প পরিচালক সুকুমার চন্দ্র দাস আন্দোলনকারীদের স্মারকলিপি গ্রহণ করে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে পৌছে দেওয়া এবং বিষয়টি তিনিও গুরুত্বসহকারে দেখার আশ্বাস প্রদান করেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট