মামুনের ঘাতকদের গ্রেফতারে আল্টিমেটাম : ব্যবসায়ীদের অবরোধ

প্রকাশিত: ১:২৪ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৬

842সিলেট নগরীর জিন্দাবাজারে এলিগেন্ট শপিং সেন্টারের মোবাইল ফোন ব্যবসায়ী করিম বক্স মামুনকে ছুরিকাহত করে হত্যার প্রতিবাদে জিন্দাবাজার-জল্লারপাড় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছেন ব্যবসায়ীরা।
বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় মামুন হত্যার প্রতিবাদে শপিং সেন্টারের সামনে বিক্ষোভ শুরু করেন তারা। এসময় ব্যবসায়ীরা রাস্তা অবরোধ করে হত্যাকারীর গ্রেফতারের দাবি করেন।
এসময় ব্যবসায়ীদের আন্দোলনের সাথে একাততা পোষণ করে বক্তব্যে রাখেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপদি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, ২০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ।
সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, ২৪ ঘন্টা মধ্যে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে শাস্তির ব্যবস্থ করুণ। অন্যতায় ব্যবসায়ীরা পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবেন।
ব্যবসায়ীদের রাস্তা অবরোধের কারণে নগরীতে জনদুভোগ সৃষ্টি  হয়েছে শুনে ব্যবসায়ীদের সাথে আলাপ আলোচনার মধ্যে দিয়ে সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে ব্যবসায়ীরা ২৪ ঘন্টার জন্য তাদের আন্দোলন স্থগিত করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন শেখ মকন মিয়া, নজমুল হক, আব্দুর রকিব সিকদার, রিয়াদুল হাসান রুহেল, সুহেল আহমদ সাহেল, আব্দুল আজিজ পাবেল, মেহদী কাবুল, মাহবুবুল আলম মিলন, আবু তাহের, সরজ ভুর্টাচার্য্য, কিবরিয়া হোসেন নিঝুম, আবুল হাসান, জাকারিায়া ইমরুল, সাদিকুল আলম, ফয়জুল হাসান, এহসানুল হক তাহের, দিলওয়ার হোসেন খান প্রমুখ।
উল্লেখ্য যে মঙ্গলবার ২টার দিকে দোকানের সামনে মোটরসাইকেল রাখা নিয়ে বাকবিতণ্ডার জের ধরে মামুনের বুকের বাম পাশে ছুরিকাঘাত করা হয়। পরে মোটরসাইকেলে করে চলে যায় হামলাকারী দুই ব্যক্তি। মূল হামলাকারী ব্যক্তির পরনে ছিল বাদামি রঙের টি-শার্ট ।
গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
বুধবার (১৭ আগস্ট) ভোর সোয়া ৩টার দিকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট