নারীর তারুণ্য ধরে রাখে যে খাবার

প্রকাশিত: ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৬

নারীরা সাধারণত তারুণ্য ধরে রাখতে রুপচর্চা ও স্বাস্থ্য সেবায় মনোযোগী হয়ে থাকেন। অধিকাংশ নারী সব সময় সতেজ থাকতে চান। তাহলে এবার জেনে নিন কী খাবার খেলে আপনার স্বাস্থ্য ও তারুণ্য ঠিক থাকবে।

শাক-সবজি

বেশি করে শাক-সবজি খাওয়া স্বাস্থ্যে জন্য খুবই ভালো। এর মধ্যে বিভিন্ন ধরনের শাক, শিম, ব্রোকলি, লেটুস পাতা, বাঁধাকপি- এসব খাদ্য তালিকায় থাকতে পারে। উচ্চ পরিমাণ আঁশ, ভিটামিন সি, ভিটামিন কে এবং ফলিক এসিডের উৎস। রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ চার মিনারেল- ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন ও পটাশিয়াম। চেষ্টা করতে হবে প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় যেন এই খাবারগুলো থাকে।

গম

গমে রয়েছে ৯৬ শতাংশ আঁশ, প্রয়োজনীয় পুষ্টি ও ভিটামিন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, গমের রুটি, গমের পাস্তার মধ্যে উচ্চমাত্রার পুষ্টি রয়েছে। খাদ্যতালিকায় তাই এই খাবার রাখতে পারেন। নারীর শরীরের পুষ্টির চাহিদা পূরণ করতে এ ধরনের খাবার খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

বাদাম

বাদামকে খাবারের তালিকায় অবশ্যই রাখতে হবে। এটি প্রোটিন, ম্যাগনেসিয়াম, ভিটামিন ই এবং ভিটামিন বি-এর ভালো উৎস, যা হৃদরোগ ও ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করে। এর মধ্যে রয়েছে উচ্চমাত্রার ক্যালরি, তবে এর চর্বি হৃৎপিণ্ডের জন্য ভালো। বিকেলের নাশতা হিসেবেও বাদাম খাওয়া যেতে পারে। তবে বেশি খাবেন না। সপ্তাহে ১৫ থেকে ২০টি কাঠবাদাম, ওয়ালনাট বা চিনাবাদামই যথেষ্ট।

দই

ননিবিহীন দই ভিটামিন, প্রোটিন ও ক্যালসিয়ামের উন্নতমানের উৎস। এর মধ্যে রয়েছে স্বাস্থ্যকর ব্যাকটেরিয়া, যা রোগের সঙ্গে লড়াই করে। সপ্তাহে তিন থেকে চার কাপ খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। তবে নিশ্চিত হয়ে নিন যে দইটি খাচ্ছেন তার মধ্যে কোনো চিনি নেই।

বেরি-জাতীয় ফল

বেরি-জাতীয় ফল যেমন ব্লুবেরি, স্ট্রবেরি ও জামে আছে উচ্চ পরিমাণে আঁশ আর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। এই অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট কেবলমাত্র বিভিন্ন রোগের ঝুঁকিকেই কমাবে না, স্মৃতিশক্তি বাড়াতেও কাজ করে। ত্বকের লাবণ্য ধরে রাখতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের তুলনা হয় না।

  •