ক্যান্সার চিকিত্‍সায় নতুন প্রযুক্তি, নেতৃত্বে বাঙালি

প্রকাশিত: ১২:৪৩ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৬

একটি বিশেষ যন্ত্রের সাহায্যে একধরণের রশ্মি ব্যবহার করে মানুষের শরীরে লুকিয়ে থাকা ক্যান্সার কোষ ধ্বংস করা সম্ভব হচ্ছে। খুব কম সময়ের মধ্যেই।

এমনই অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ক্যান্সার কোষ বিনাশকারী যন্ত্র চালানোয় নেতৃত্ব দিচ্ছেন ভারতের এক বাঙালি চিকিৎসক। ওই বাঙালি ডাক্তার হলেন কৌস্ত্তভ তলপাত্র৷ তার পৈত্রিক বাড়ি কলকাতার বেকবাগানের ঝাউতলা রোডে। ডাক্তারির পড়াশুনা করেছেন সিএমসি ভেলোরে। গত আট বছর ধরে তিনি একের পর এক অত্যাধুনিক ক্যান্সার চিকিৎসার যন্ত্র চালানোয় সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

প্রায় কল্পবিজ্ঞান পর্যায়ের প্রযুক্তির যন্ত্রটির পোশাকি নাম, ‘এজ (EDGE)’। মূল্য সাড়ে পাঁচ মিলিয়ন ডলার। শনিবার ভারতের মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি হসপিটাল অ্যান্ড মেডিক্যাল রিসার্চ সেন্টারে এমনই এক অত্যাধুনিক যন্ত্রের উদ্বোধন করা হয়েছে।

কর্তৃপক্ষের দাবি, এজ যন্ত্রটি দক্ষিণ এশিয়াতেই প্রথম ব্যবহার হচ্ছে এই হাসপাতালে।

যেসব সুবিধা আছে যন্ত্রটিতে-

শরীরে টিউমার হয়েছে? শরীরের যেখানেই টিউমার লুকিয়ে থাক, যান্ত্রিক চোখ তা খুঁজে বের করবেই। এরপর এক সুযোগেই সেই টিউমার ‘মুছে’ ফেলতে সক্ষম হবে। কোনও রক্তপাত ছাড়া। অল্প সময়ের মধ্যে। শুধু শরীরের একটা অংশের টিউমার নয়। শরীরে একাধিক জায়গায় টিউমার থাকলেও তা প্রথম সুযোগেই বিনাশ করতে পারবে এই যন্ত্র।

শনিবার নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে কৌস্ত্তব জানান, এই যন্ত্র হাতে ডাক্তারদের কাজ হচ্ছে অনেকটা শার্প শ্যুটারের মতো। দূর থেকে নিশানা ঠিক করে গুলি করে টার্গেটকে খতম করা। তিনি অকপটে জানালেন, সিএসসি ভেলোর থেকে পাশ করার পর টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে প্রশিক্ষণ নেন তিনি। তখন থেকেই রেডিয়েশনের মাধ্যমে ক্যান্সার নির্মূল করার নতুন নতুন প্রযুক্তি কব্জা করার চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করেন। বর্তমান কর্মস্থলে গত আট বছরে এর আগে আরও দু’টি নতুন প্রযুক্তির মেশিন সফলভাবে চালানোর কৃতিত্ব তাঁর। এর মধ্যে একটি অত্যাধুনিক সাইবার নাইফ, যা দিয়ে সুক্ষভাবে টিউমার রক্তশূন্যভাবে পুড়িয়ে ফেলা সম্ভব। তবে, এজ মেশিনে টিউমার নষ্ট করার ক্ষেত্রে সময় আরও কম লাগবে।

এই যন্ত্রের ফলাফলে সন্তুষ্ট বিশেষজ্ঞরা।

  •