গোলাপগঞ্জে পাগলা শেয়ালের কামড়ে অর্ধশতাধিক আহত

প্রকাশিত: ২:০২ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৬, ২০১৬

সোমবার (১৫ আগস্ট) উপজেলার রণকেলী পৌর সদরের ৯ নং ওয়ার্ডে সন্ধ্যা রাত্রে তান্ডব চালায় হিংস্র পাগলা শেয়াল।

বিদ্যৎ বিহীন এলাকা থাকায় গরমের যন্ত্রণায় সাধারণ মানুষ ঘরের দরজা জানালা খুলে রাখে। হঠাৎ করে ঘরের মধ্যে ঢুকে পড়ে পাগলা শেয়াল। নারী শিশু কিশোর বৃদ্ধসহ গবাদিপশুদের উপর্যুপরি কামড়াতে থাকে।

এলাকার লোকজন বুঝে ওঠার আগেই অর্ধ শতাধিক লোককে আহত করে ফেলে। আহত অবস্থায় প্রথমে ধারাবহর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসেন।

গুরুতর আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। রির্পোট লেখা পর্যন্ত পাগলা শেয়াল ধরা বা মারা সম্ভব হয়নি। মানুষ আতঙ্কে লাঠি ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রাস্তা ঘাটে বাড়ী আশ পাশে পাহারা বসিয়েছে। আহতদের মধ্যে নরুপাড়া গ্রামের সুলেমান আলীর মেয়ে রোমানা বেগম (৪), হেলাল মিয়ার ছেলে ইমন (৮), জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী বেদেনা বেগম (২৫), কুতুব আলীর মেয়ে সুমি বেগম (১২), মৃত মখলিছুর রহমানের ছেলে মুহিবুর রহমান (৪২), তৈয়ব আলীর স্ত্রী ছায়া বেগম (৬০), আব্দুল মালিকের ছেলে আব্দুল কালাম (২৮), রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে শওকত (৭), সৌরভ (১০), মেয়ে রিছা বেগম (১৪), ধারাবহর গ্রামের মোহাম্মদ কুদ্দুছ (৩০)।

কর্তব্যরত চিকিৎসক শাহনেওয়াজ জানান এ পর্যন্ত ১৫জন রোগীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট প্রেরন করা হয়। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দেয়া হয়েছে।

খবর পেয়ে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ উপ পরিদর্শক জাকির হোসেন একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শন করেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট