রাশিয়ার ৩ ঘন্টার অস্ত্রবিরতি ঘোষণা

প্রকাশিত: ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০১৬

দামেস্ক : রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বুধবার জানিয়েছে, তারা সিরিয়ার যুদ্ধবিধ্বস্ত আলেপ্পো নগরীতে মানবিক ত্রাণ সরবরাহের সুযোগ দিতে প্রতিদিন তিন ঘন্টা অস্ত্রবিরতি পালন করবে।

জাতিসঙ্ঘ জানায়, নগরীর প্রয়োজন মিটাতে এ ধরনের একটি পদক্ষেপ যথেষ্ট নয়।

রাশিয়ার সেনাবাহিনীর জেনারেল স্টাফ লে. জেনারেল সের্গেই রুদস্কয় সাংবাদিকদের বলেন, ‘আলেপ্পোতে ত্রাণ সরবরাহ বহরের সম্পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সেখানে বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত মানবিক পথ খোলা হবে। এসময় সেখানে সব ধরনের সামরিক অভিযান বন্ধ থাকবে।

এই অস্ত্রবিরতি বৃহস্পতিবার থেকে প্রতিদিন গ্রিনিচ মান সময় ০৭টা থেকে ১০টা পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। তবে কতদিন এই অস্ত্রবিরতি চলবে রুদস্কয় সেব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কিছু বলেননি।

মস্কোর এমন ঘোষণার পরপরই জাতিসংঘের শীর্ষ ত্রাণ কর্মকর্তা জানান, দিনে মাত্র তিন ঘন্টার জন্য অস্ত্রবিরতি পালন সেখানে বেসামরিক নাগরিকদের প্রয়োজনীয় মানবিক চাহিদা পূরণের জন্য যথেষ্ট হবে না।

মানবিক সাহায্য বিষয়ক জাতিসঙ্ঘ আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল স্টিফেন ও’ব্রিয়েন সাংবাদিকদের বলেন, ‘এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় চাহিদা পূরণে আমাদের দু’টি রাস্তা প্রয়োজন এবং সেখানে প্রয়োজনীয় ত্রাণ সরবরাহে আমাদের ৪৮ ঘন্টা সময় দরকার হবে।’

‘সেখানে অস্ত্রবিরতির তিন ঘন্টার প্রস্তাবে কি অর্জন করা যাবে তা আমরা আপনাদের কাছে জানতে চাই।’

জাতিসঙ্ঘ আলেপ্পোতে জরুরি ত্রাণ সরবরাহের এবং সেখানে ত্রাণ সরবরাহে সপ্তাহে ৪৮ ঘন্টা অস্ত্রবিরতির আহবান জানিয়েছে।

জাতিসঙ্ঘর বিভিন্ন সংস্থা জানায়, আলেপ্পোতে সর্বোচ্চ ২০ লাখ লোক গত চারদিন ধরে পানি ছাড়াই দিন কাটাচ্ছে।

  •