টেলিটককে দাঁড় করাবোই : তারানা হালিম

প্রকাশিত: ১:০৬ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০১৬

রাষ্ট্রায়ত্ত্ব মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটককে প্রতিযোগিতায় দাঁড় করাতে তিন মেয়াদে দুই বছরের টার্গেট নির্ধারণ করার কথা জানিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, ‘ছয় মাস, এক বছর ও দু’বছর মেয়াদী পরিকল্পনায় টেলিটকের সাশ্রয়ী প্যাকেজ, নেটওয়ার্ক, অবকাঠামো সুবিধা বাড়ানো হবে। সরকারের গুরুত্বপূর্ণ এ প্রতিষ্ঠানকে আমি দাঁড় করাবোই।’

আজ বৃহস্পতিবার সকালে গুলশানে টেলিটক অফিসে বিকাশের মাধ্যমে টেলিটকের এয়ারটাইম রিচার্জ সুবিধা উদ্বোধনকালে তিনি একথা বলেন।

অনুষ্ঠানে টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, বিকাশ’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) কামাল কাদীরসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

টেলিটকের বর্তমান অবকাঠামো তুলে ধরে তারানা হালিম বলেন, এই মুহূর্তে টুজি টাওয়ার তিন হাজার ৭৫০টি, থ্রিজি টাওয়ার রয়েছে এক হাজার ৫৬২টি। নিজস্ব অর্থায়নে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে এক হাজার ৭০০টি নতুন টুজি টাওয়ার এবং এক হাজার ৫০০টি থ্রিজি টাওয়ার স্থাপন করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, একনেকে ৬৭৫ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন হয়েছে, যা ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে শেষ হবে। এতে এক হাজার ২০০টি থ্রিজি টাওয়ার এবং ৫০০টি টুজি টাওয়ার স্থাপন করা হবে। এছাড়াও তিন হাজার ২০০ কোটি টাকার একটি প্রস্তাব টেলিটক থেকে প্রণয়ন করা হচ্ছে। বোর্ড মিটিংয়ে অনুমোদন হয়ে ডিপিপি পাস হলে ইউনিয়ন পর্যন্ত থ্রিজি নিয়ে যেতে সক্ষম হবো।

আগামী ছয় মাসের টার্গেট তুলে ধরে তারানা বলেন, ‘এখন যে ৩৯ হাজার রিটেইলার পয়েন্ট আছে তা আগামী ছয় মাসে ৭৭ হাজার বৃদ্ধি করবো। কাস্টমার কেয়ার আরো ২০টি যুক্ত করবো। আগামী এক বছরে আমাদের লক্ষ্য উপজেলায় যাওয়া, ২০১৮ সালে সব উপজেলা কাভার করার ইচ্ছা আছে।’

টেলিটকের কর্মীদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধির জন্য প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট