হাজিরা দিতে আদালতে পৌঁছেছেন খালেদা জিয়া

প্রকাশিত: ১২:২৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০১৬

রাষ্ট্রদ্রোহিতা, নাশকতা ও দুর্নীতির ১২ মামলার শুনানিতে অংশ নেওয়ার জন্যে ঢাকার নিম্ন আদালতে পৌঁছেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

বুধবার সকাল সোয়া ১০টায় রাজধানীর গুলশানের তার বাসভবন ‘ফিরোজা’ থেকে আদালতের উদ্দেশে রওয়ান‍া দেন তিনি।

এদিকে বিএনপি প্রধানের হাজিরাকে কেন্দ্র করে পুরান ঢাকার জনসন রোড, ভিক্টোরিয়া পার্কসহ পুরো আদালতপাড়ায় কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

এসব এলাকায় কড়া অবস্থান নিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। তারা জনচলাচলেও রাখছে সতর্ক নজর।

পুলিশের দায়িত্বরত কর্মকর্তারা বলছেন, বিএনপির কমিটি দেওয়ার পর আদালতে খালেদার প্রথম হাজিরায় নেতাকর্মীদের ভিড় বাড়তে পারে এবং সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলার বিষয়গুলো মাথায় রেখে এ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এই নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে অন্য যেকোনো সময়ের তুলনায় বেশি বলে উল্লেখ করছেন তারা।

এদিকে, আদালতে খালেদা জিয়া হাজির হওয়ার আগে এজলাসকক্ষে হাজির হয়েছেন তার ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষী বাহিনী সিএসএফের সদস্যরাও।

তবে, সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্তও আদালতপাড়ায় বিএনপির কোনো নেতাকর্মীকে দেখা যায়নি। কেবল একটি মামলায় হাজিরা দিতে উপস্থিত হয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এম কে আনোয়ার।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী ও বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া জানান, ২০১৫ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত সময়ে ঢাকার দারুস সালাম থানা এলাকায় নাশকতার অভিযোগে দায়ের করা ৯ মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইবেন খালেদা জিয়া। মামলাগুলোর মধ্যে ৮টি মহানগর দায়রা জজ আদালতে ও একটি ঢাকার সিএমএম আদালতে বিচারাধীন।

তিনি আরো জানান, এ ৯ মামলা ছাড়াও নাইকো দুর্নীতি মামলা ও রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় অভিযোগ (চার্জ) গঠনের শুনানি এবং বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি দুর্নীতি মামলায় হাজিরা দেবেন তিনি।

দলটির সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদিন মেজবাহ জানান, দারুস সালাম থানার ৬২ (১) ১৫, ৫ (২) ১৫, ৬ (২) ১৫, ৮ (২)১৫, ১২(২)১৫, ২৯(২)১৫, ৩১(২)১৫, ৩(৩)১৫ ও ৪(৩)১৫ নম্বর মামলায় জামিন চাইবেন খালেদা জিয়া।

এর মধ্যে ৪(৩)১৫ নম্বর মামলায় সিএমএম আদালতে ও বাকিগুলোতে মহানগর দায়রা জজ আদালতে জামিন চাওয়া হবে।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট