অলিম্পিকে সাত অ্যাথলেটকে নিয়ে বাংলাদেশের নতুন স্বপ্ন

প্রকাশিত: ১০:৫৩ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৬, ২০১৬

ঢাকা: ব্রাজিল অলিম্পিকে অংশ নিয়েছেন বাংলাদেশের সাত অ্যাথলেট। এর মধ্যে নিজের যোগ্যতা দেখিয়ে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে অলিম্পিক আসরে সরাসরি নাম লেখান দেশসেরা গলফার সিদ্দিকুর রহমান। বাকি ছয়জনই গিয়েছেন ‘ওয়াইল্ড কার্ড’ পেয়ে। ফলে এবার অলিম্পিক গেমসকে ঘিরে স্বপ্ন তৈরি হয়েছে বাংলাদেশের ক্রীড়াপ্রেমীদের।

সিদ্দিকুর ছাড়াও অলিম্পিক মঞ্চে আছেন দেশসেরা সাঁতারু মাহফিজুর রহমান সাগর ও সোনিয়া আক্তার টুম্পা। শ্যুটিংয়ে কমনওয়েলথ গেমসের রূপাজয়ী আবদুল্লাহ হেল বাকি আশার আলো দেখাচ্ছেন। আরচ্যারিতে রয়েছেন শ্যামলী রায়। আর দেশের দ্রুততম মানব-মানবী স্প্রিন্টার মেজবাহ আহমেদ ও শিরিন আক্তারও গিয়েছেন ব্রাজিলের মাটিতে।

অলিম্পিকের মঞ্চে পদকের লড়াইয়ে পাঁচ ডিসিপ্লিনে লাল-সবুজের পতাকা উড়াবেন এই সাত অ্যাথলেট। বাংলাদেশের পতাকা বহনের দায়িত্ব পালন করেন গলফার সিদ্দিকুর।

সিদ্দিকুর রহমান: অলিম্পিক রেঙ্কিংয়ের সেরা ৬০ জন গলফার অংশ নিয়েছেন পুরুষ বিভাগে। গত ১১ জুলাই প্রকাশিত অলিম্পিকের সর্বশেষ ৠাঙ্কিংয়ে ৫৬তম স্থানে থেকে অলিম্পিকে অংশগ্রহণের সুযোগ পান সিদ্দিকুর। ৬ আগস্ট অলিম্পিক গেমস শুরু হলেও গলফ ডিসিপ্লিন অনুষ্ঠিত হবে ১১-১৪ আগস্ট।

দেশ ছাড়ার আগে ‘অলিম্পিকে বাংলাদেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা গর্বের’ বলে জানিয়েছেন সিদ্দিকুর।পদক জয়ের স্বপ্ন না দেখলেও বাংলাদেশের সম্মান রাখতে চান এ গলফার। ২০১০ সালে বাংলাদেশের প্রথম গলফার হিসেবে এশিয়ান ট্যুরের শিরোপা জেতেন সিদ্দিকুর। দেশের হয়ে প্রথম গলফ বিশ্বকাপেও খেলেন তিনি। সেই ধারাবাহিকতায় এবার দেশের প্রথম অ্যাথলেট হিসেবে সরাসরি অলিম্পিকে খেলতে গিয়েছেন ৩১ বছর বয়সী এই গলফার।

মাহফিজুর রহমান সাগর: লন্ডন অলিম্পিকের পর এবার রিও অলিম্পিকে বাংলাদেশি সাঁতারু হিসেবে অংশ নেবেন মাহফিজুর রহমান সাগর। সাঁতারের ৫০ মিটার ফ্রি স্টাইল ও ব্রেস্টস্ট্রোকে পদকের জন্য লড়াই করবেন নৌ-বাহিনীর এই সাঁতারু। অলিম্পিক সামনে রেখে গত এক বছর থাইল্যান্ডে উচ্চতর অনুশীলন শেষে দেশে ফেরেন তিনি। এবার কোয়ালিফাই করে ব্রাজিলে যাওয়ার প্রচণ্ড ইচ্ছা ছিল তার। তবে ওয়াইল্ড কার্ড নিয়ে শেষ পর্যন্ত অলিম্পিকে অংশ নিতে পারছেন বলে খুশি এই সাঁতারু।

আবদুল্লাহ হেল বাকি: শ্যুটিংয়ে কমনওয়েলথ গেমসের রূপাজয়ী আবদুল্লাহ হেল বাকি অংশ নিয়েছেন অলিম্পিকে। যোগ্যতা দেখিয়ে সুযোগ পাওয়ার ইচ্ছা থাকলেও তাকে যেতে হয় ওয়াইল্ড কার্ড নিয়েই। অলিম্পিকে ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে খেলবেন বাকি।

সোনিয়া আক্তার টুম্পা: প্রথমবারের মতো অলিম্পিকে অংশ নিতে যাচ্ছেন সাঁতারু সোনিয়া আক্তার টুম্পা। রাশিয়ার কাজানে গত বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের ৫০ মিটার বাটারফ্লাই ইভেন্টে ৩২.৮১ সেকেন্ড সময় নিয়ে ৬৪ জনের মধ্যে ৬০তম হয়েছিলেন সোনিয়া। অলিম্পিকে নিজের সেরাটা দেয়াই লক্ষ্য তার।

শ্যামলী রায়: গত বছর ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে হওয়া বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের আরচ্যারির পারফরম্যান্স বিবেচনা করে শ্যামলী রায়কে দেয়া হয়েছে ওয়াইল্ড কার্ড।  ডেনমার্কের কোপেনহেগেনের ওই আসরে ৩২তম হওয়া শ্যামলী অলিম্পিকে খেলার সুযোগ পাওয়ার পর বাংলানিউজকে জানান, ‘কখনও ভাবিনি জাতীয় দলে দুই বছর খেলার পর আমি অলিম্পিকে অংশ নিতে পারবো। অনেক ভালো লাগছে। আমার জন্য প্রার্থণা করবেন।

  •