সুনামগঞ্জের আলীপাড়ায় শিক্ষকের উপর হামলা ।। পিতা-পুত্র গ্রেফতার

প্রকাশিত: ২:৩৩ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৪, ২০১৬

॥ সুনামগঞ্জ পৌর শহরের মোহাম্মদপুর এলাকার ভাড়াটিয়া সদর উপজেলার তেলিকোনা মন্নরপুর গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক বশির আহমেদ (৫৫) উপর হামলাকারী মুহাম্মদপুর এলাকার লুৎফুর রহমান (৪৮) ও তার ছেলে সোহাগ মিয়াকে (২২) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সুনামগঞ্জ সদর থানায় দায়েরকৃত অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ বুধবার দুপুরে নিজ বাড়ি লুৎফুর রহমান ও তার ছেলে সোহাগ মিয়াকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সুনমাগঞ্জ সদর থানার এসআই রিপন চন্দ্র গোপ বলেন,‘ লুৎফুর রহমান ও তার ছেলে সোহাগ মিয়ার বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছিল। সেই লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতেই তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত দুইজনকেই আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।’

সদর থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়- মুহাম্মদপুর এলাকায় লুৎফুর রহমানের বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসাবে বসবাস করতেন আহত অবসরপ্রাপ্ত বশির আহমেদ। কথা কাটাকাটির জের ধরে গত ২৩ জুলাই শনিবার রাতে বশির আহমেদকে মুহাম্মদপুর পয়েন্ট থেকে আলীপাড়া পয়েন্টে ডেকে এনে লুৎফুর রহমান ও তার ছেলে সোহাগ মিয়া সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এসময় হামলাকারীরা বশির আহমেদর কাছ থেকে মোবাইল ফোন ও পকেটে থাকা নগদ ২৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।

হামলাকারীরা বশির আহমেদকে রড দিয়ে মারধর করে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপায়। হামলায় বশির আহমেদের মাথা, নাক, বুক গুরুতর জখম হয়। স্থানীয়রা আহত বশির আহমদকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় পর দিন আহত বশির আহমেদের শ্যালক মোহাম্মদপুরের আনোয়ার হোসেন বাদি হয়ে হামলাকারী লুৎফুর রহমান ও তার ছেলে সোহাগ মিয়ার বিরুদ্ধে সদর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট