জঙ্গি দমনে জোর দিয়ে শেষ হলো ডিসি সম্মেলন

প্রকাশিত: ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৩০, ২০১৬

জেলা প্রশাসকদের জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে স্থানীয় পর্যায়ে জনসচেতনতা সৃষ্টি ও জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলার নির্দেশনার মধ্য দিয়ে শেষ হলো চার দিনের জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলন।

ডিসি সম্মেলনের শেষ দিনে গতকাল শুক্রবার সকালে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের সভাপতিত্বে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশনা দেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, নৌ পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মোহাম্মদ মতিউর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিবরা।

এরপর তাদের নির্দেশনা দেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। এর মধ্য দিয়ে সমাপ্তি ঘটে চারদিনের ডিসি সম্মেলনের।

এবারের সম্মেলনে ভূমি ব্যবস্থাপনার উন্নতির বিষয়টি প্রধান আলোচ্য বিষয় হলেও তা ছাপিয়ে জায়গা করে নেয় জঙ্গি ও সন্রাবিসবাদ। উঠে আসে গুলশানের হলি আর্টিজন বেকারী এবং শোলাকিয়া ঈদগাহের অদূরে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা।

সম্মেলনে জনপ্রশাসন মন্ত্রণলায়, অর্থমন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়, আইন মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, ধর্মমন্ত্রণালয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, শিক্ষামন্ত্রণালয়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, শিল্প মন্ত্রণালয়, বাণিজ্যমন্ত্রণালয়সহ অধিকাংশ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে জেলা প্রশাসকদের বৈঠকে জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ বিষয়ে আলোচনা প্রাধান্য পায়। মন্ত্রণালয় ভিত্তিক নানান সমস্যা নিয়েও আলোচনা হয় বৈঠকে।

চারদিনের সম্মেলনে জঙ্গি ও সন্ত্রাস দমনে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়ন, স্থানীয় পর্যায়ে জনমত গঠন করে সর্বস্তরের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ডিসিদের সন্ত্রাসী কার্যক্রম মোকাবেলার নির্দেশ দেওয়া হয়। বিশেষ করে স্থানীয় পর্যায়ে সবাইকে নিয়ে সন্ত্রাস বিরোধী কমিটি গঠনের উপর জোর দেওয়া হয়েছে। এ সব কাজে ডিসিদের সর্বাত্মক সহযোগিতার কথাও জানিয়েছেন মন্ত্রীরা।

এবারের ডিসি সম্মেলনে জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ প্রধান আলোচ্য বিষয় ছিল জানিয়ে সম্মেলন শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, এবারের সম্মেলন থেকে ডিসিদের যে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে, তার মধ্যে বড় ম্যাসেজ হলো- জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসকরা নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করবেন। স্থানীয় পর্যায়ে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলা করবেন।

তিনি বলেন, এবারের সম্মেলনের ১৮ অধিবেশনে মোট ৩৩৬টি প্রস্তাব উত্থাপনের কথা থাকলেও ২৮৮ প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়েছে। এ সব প্রস্তাবনা নিয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ডিসিদের আলোচনা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার কার্যালয়ের শাপলা হলে ডিসি সম্মেলনের শুভ ‍উদ্বোধন করেন।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট