সারাদেশে ইফার খুতবা মনিটরিং করা হচ্ছে : খাদ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২:১৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ২২, ২০১৬

সারা দেশে ইসলামী ফাউন্ডেশনের খুতবা মনিটরিং করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম। একই সঙ্গে যারা এই খুতবা প্রত্যাখ্যান করেছে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ইউনাইটেড ইসলামী পার্টি আয়োজিত ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ কোরআন ও হাদিসের আলোকে কি?’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, দেশের অনেক মসজিদের ইমামরা ইসলামী ফাউন্ডেশনের খুতবা প্রত্যাখ্যান করেছে। যারা এটি প্রত্যাখ্যান করেছে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া হবে।

তিনি বলেন, আমরা সেই সকল মসজিদ মনিটরিং করছি। ইমামরা মসজিদে যা খুশি তাই বলতে পারে না। তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, দয়া করে ২০ দলীয় জোট থেকে জামায়াতকে বের করে দিন। শেখ হাসিনাকে নেতা হিসেবে মানুন তার পরই কেবল মাত্র আপনাদের সঙ্গে জাতীয় ঐক্য হতে পারে।

জাতীয় ঐক্যে বিদেশি সাহায্য প্রসঙ্গে কামরুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী সব দেশের সাহায্য নিবেন। সবার সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক। তবে এমন কোন দেশের নিকট থেকে সাহায্য নিবেন না যাতে করে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়।

একই সভায় প্রধান অতিথির আলোচনায় আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশে সংগঠিত জঙ্গি হামলায় প্রত্যক্ষভাবে মদদ দিচ্ছে জামায়াত-শিবির। তারা জঙ্গিদের ট্রেইনার হিসেবে কাজ করছে।

খালেদা জামায়াতকে ত্যাগ না করে জঙ্গিদের পাশে বসিয়ে রেখে জাতীয় ঐক্যের কথা বলে তখন দেশের সমস্ত জনগণ তখন হাসে বলেও মন্তব করেন তিনি।

সংগঠনের সভাপতি ইসমাইল হোসেনের সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহ- সম্পাদক এম এ করিম বক্তব্য রাখেন।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট