ময়মনসিংহের দুই উপনির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু

প্রকাশিত: ১২:১৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৮, ২০১৬

ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহ-১ (হালুয়াঘাট-ধোবাউড়া) ও ময়মনসিংহ-৩ (গৌরিপুর) আসনের উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। সকাল ৮টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে।

সোমবার ভোট গ্রহণ উপলক্ষে নির্বাচনী এলাকায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে কেন্দ্রপ্রতি ২২ জন করে সমন্বিত ফোর্স মোতায়েন রয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে অতিরিক্ত দুজন করে ফোর্স রয়েছে।

ময়মনসিংহ-১ আসনে ৩,৬২,৬৯৪ জন ভোটার রয়েছে। এতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী প্রয়াত প্রতিমন্ত্রী প্রমোদ মানকিনের ছেলে জুয়েল আরেং, স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিমা খাতুন ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী সোহরাব উদ্দিন খান। এ আসনের ১৩৩টি ভোটকেন্দ্রে ভোট গ্রহণ চলছে।

ময়মনসিংহ-৩ আসনে ভোটার সংখ্যা ২,২৬,২৩৫ জন ভোটার। এতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আজিজুল হক, আওয়ামী লীগের প্রার্থী নাজিম উদ্দিন আহমেদ, জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. শামসুজ্জামান, ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী মো. আবু তাহের খান ও ন্যাপের প্রার্থী মো. আব্দুল মতিন। এ আসনের ৮৭টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে।

নির্বাচনী এলাকায় চার দিনের জন্য মাঠে নেমেছে বিজিবি ও র‌্যাব। এক্ষেত্রে ময়মনসিংহ-১ আসনে পুলিশ, আনসার, র‌্যাব, এপিবিএন সদস্যদের সমন্বয়ে ৫৭টি ভ্রাম্যমান দল ও ১৯টি স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েন রয়েছে। এ ছাড়া বিজিবি মোতায়েন রয়েছে চার প্লাটুন। প্রতি প্লাটুনে ২০ জন করে জওয়ান রয়েছে।

অন্যদিকে ময়মনসিংহ-৩ আসনে ৩৫টি ভ্রাম্যমাণ দল ও ১২টি স্ট্রাইকিং ফোর্স নিয়োজিত রয়েছে। প্রতিটি দলে ছয়জন করে দায়িত্ব পালন করছে। বিজিবি মোতায়েন রয়েছে ৩ প্লাটুন।

ভ্রাম্যমাণ ও স্ট্রাইকিং ফোর্স মঙ্গলবার পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়া প্রতিটি কেন্দ্রে তিনজন করে নির্বাহী এবং দুজন করে বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন।

গত ১১ মে ময়মনসিংহ-১ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) ও সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী প্রমোদ মানকিন মারা যাওয়ায় তার আসনটি শূন্য ঘোষণা করে সংসদ সচিবালয়।

অন্যদিকে গত ২ মে ময়মনসিংহ-৩ আসনের এমপি ডা. মুজিবুর রহমান ফকিরের মৃত্যুর পর তার আসনটিও শূন্য হয়। পরবর্তীতে গত ৯ জুন আসন দু’টিতে উপ-নির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

  •