পাবনা ঈশ্বরদীতে যুবদলের গাড়ি বহরে হামলা ভাঙচুর

রাজনীতি
কেন্দ্রীয় এই তিন নেতা গাড়িবহরে ছিলেন

দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি নেতাদের বাড়িতে দেখা করতে আসার সময় পাবনার ঈশ্বরদীতে জেলা যুবদলের একটি গাড়িতে হামলার শিকার হয়েছেন জেলা যুবদলের কয়েকজন নেতা-কর্মী।

বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে ঈশ্বরদী শহরের থানার সন্নিকটে এ ঘটনা ঘটে। এসময় একটি মাইক্রোবাস ভাংচুর করা হয়। স্থানীয় যুবলীগের একটি অংশ এ হামলার সঙ্গে জড়িত বলে দাবি করেছেন ঈশ্বরদীর যুবদল ও ছাত্রদল নেতারা।
হামলায় আহতরা হলেন পাবনা জেলা যুবদলের সহ সভাপতি মামুনুর রহমান কল্লোল লালন (৩৭), পাবনা সদর থানা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মোঃ সজিব শেখ (৩৬), জেলা যুবদলের যুগ্ম-সম্পাদক মোঃ সজিব হোসেন (৪০)। তাদের বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
ঈশ্বরদী পৌর ছাত্রদলের সভাপতি আওয়াল কবির জানান, বুধবার বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা ঈশ্বরদীতে শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলি মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত নেতাদের বাড়িতে আসছেন-এ কারনে পাবনা জেলা যুবদলের নেতারা কেন্দ্রীয় যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন, সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান মামুনকে সঙ্গে নিয়ে দুটি মাইক্রোবাসে ঈশ্বরদীতে আসছিলেন। কেন্দ্রীয় নেতাদের বহনকারী মাইক্রোটি থানা অতিক্রম করার কিছুক্ষণের মধ্যে যুবলীগ পরিচয়ে ২০-২৫ জন যুবক মাইক্রোটি থামিয়ে ভাংচুর ও স্থানীয় যুবদল নেতাদের মারধর করে পালিয়ে যায়।
ঈশ্বরদী থানার অফিসরা ইনচার্জ (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী বলেন, আটককৃত সজিব মালিথা, শাওন ও শুভ হামলাকারী নয়। উৎসক জনতা। প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে জিজ্ঞাবাদের জন্য থানা আনা হয়েছে বলে দাবি করেন। হামলাকারীরা পালিয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হাইসটি পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। কেউ কোনো অভিযোগ দায়ের করেনি বলে জানার ওসি।
এদিকে বিএনপি মহাসচিব আওয়ামী সন্ত্রাসীদের দ্বারা পাবনায় সংঘটিত বর্বরোচিত ও নৃশংস ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং অবিলম্বে দোষী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি করেন। সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুতর আহত নেতাকর্মীদের আশু সুস্থতাও কামনা করেন বিএনপি মহাসচিব।
  •  
  •  

Leave a Reply