আদালতে তোলা হয়েছে ডিআইজি মিজানকে

জাতীয়

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলায় সাময়িক বরখাস্তকৃত পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানকে আদালতে নেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) সকাল ১০টা ৩০ মিনিটের দিকে তাকে শাহবাগ থানা থেকে আদালতে নেওয়া হয়। শাহবাগ থানার ওসি আবুল হোসেন বিষয়টি জানিয়েছেন।

এর আগে, সোমবার (১ জুলাই) জামিন আবেদনের শুনানিতে বরখাস্ত ডিআইজি মিজানের কর্মকাণ্ডে পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে উল্লেখ করে তাকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠাতে শাহবাগ থানা পুলিশকে নির্দেশ দেন  হাইকোর্ট। আদালতের নির্দেশ সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে মিজানকে আদালত থেকে গ্রেফতার করে ডিএমপি রমনা জোনের এডিসি আজিমুল হকের গাড়িতে করে শাহবাগ থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। পুলিশি পাহারায় গাড়ি থেকে নামিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় থানার ওসি আবুল হাসানের কক্ষে। এরপর থেকে তিনি সেখানেই অবস্থান করেন।

উল্লেখ্য, দুদকের দায়ের করা মামলায় আগাম জামিন চেয়ে গত ৩০ জুন হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় বহিস্কৃত ডিআইজি মিজানুর রহমান আবেদন জানান। তার পক্ষে আবেদনটি দাখিল করেন আইনজীবী মো. আসাদুজ্জামান খান।

এর আগে নারী নির্যাতনের অভিযোগে দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার হওয়া মিজানুর রহমানের অবৈধ সম্পদের তদন্ত শুরু করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। কিন্তু এই তদন্ত করতে গিয়ে দুদকের পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছির ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নিয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠে।

এছাড়া গত ১৯ জুন আদালত এক আদেশে মিজানুর রহমানের স্থাবর সম্পদ ক্রোক এবং ব্যাংক হিসাবের লেনদেন বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। গত ২৪ জুন তিন কোটি ২৮ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

Leave a Reply