শেষ পর্যন্ত জয়ের দেখা পেলো দক্ষিন আফ্রিকা

খেলার খবর

এবারের বিশ্বকাপে নিজেদের হারিয়ে খুঁজছিল অন্যতম শক্তিশালী দল দক্ষিণ আফ্রিকা। উদ্বোধনী ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে হারের পর বাংলাদেশ ও ভারতের সঙ্গেও পেরে ওঠেনি ফাফ ডু প্লেসিসের দল। মাঝে বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচটি। ফলে প্রথম চার ম্যাচে জয়বঞ্চিতই থেকে যায় তারা। অবশেষে আফগানিস্তানকে পেয়ে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আফগানদের বিপক্ষে রীতিমতো ছেলেখেলা করে ৯ উইকেটের বিশাল জয় পেয়েছে প্রোটিয়ারা।

ওয়ানডেতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আফগানিস্তান জিতে এমন বাড়াবাড়ি প্রত্যাশা বোধহয় খুব বেশিজন করেননি। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে ওয়ানডেতে এটিই আফগানিস্তানের প্রথম ম্যাচ। টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে আফগানরা অবশ্য দারুণ খেলছিল। তবে দুই দফায় বৃষ্টি মনোসংযোগ কেড়ে নেয় আফগানদের। বৃষ্টির পর টপাটপ উইকেট হারাতে থাকে এশীয় দলটি। শেষ পর্যন্ত মাত্র ১৩৫ রানে থেমে যায় আফগানদের ইনিংস।

প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে ভালোই খেলছিলেন আফগান ওপেনাররা। ষষ্ঠ ওভারে প্রথমবার আফগান ইনিংসে বৃষ্টি হানা দেয়। দলটির রান তখন কোনো উইকেট না হারিয়ে ৩৩ রান। প্রথম দফা বৃষ্টি কারণে খেলা বন্ধ থাকে প্রায় আধা ঘন্টা। ২০তম ওভারে আবার মুখ গোমড়া করে কার্ডিফের আকাশ। ততক্ষণে অবশ্য দুই উইকেট হারিয়ে বসেছে আফগানিস্তান। রহমত শাহ ও হজরতুল্লাহ জাজাই দুজনেই ২২ রান করে আউট হন।

দ্বিতীয় দফা বৃষ্টি আসার আগে ২০ ওভারে আফগানরা সংগ্রহ করে ২ উইকেটে ৬৯ রান। বৃষ্টির কারণে এবার খেলা বন্ধ থাকে এক ঘন্টা। আদ্র আবহাওয়ায় এই দফায় আফগান ব্যাটসম্যানদের ওপর চড়াও হন প্রোটিয়া বোলাররা। শুরুর তিন ওভারেই চার আফগান ব্যাটসম্যানকে ফেরত পাঠান ইমরান তাহির ও আন্দিলে ফেলুকায়ো। ২ উইকেটে ৬৯ রান থেকে নিমেষেই স্কোরটা দাঁড়ায় ৬ উইকেটে ৭০ রান। এক রান করতে চার উইকেট হারায় আফগানিস্তান।

বিশ্ব ক্রিকেটে এর চেয়ে কম রানে এতো বেশি উইকেট হারানোর কৃতিত্ব খুব বেশি দলের নেই। প্রোটিয়া বোলারদের দেওয়া এই ধাক্কা আর সামলে উঠতে পারেনি আফগান ব্যাটিং লাইন আপ। দলীয় ৭৭ রানে গুলবদিন নাইবকে ফেরান তাহির।

বৃষ্টির কারণে ম্যাচের দৈর্ঘ্য কমে আসে ৪৮ ওভারে। তবে আফগানিস্তানকে অলআউট করতে অতো ওভার লাগেনি দক্ষিণ আফ্রিকার। ৩৪.১ ওভারে মাত্র ১৩৫ রানে গুটিয়ে যায় ক্রিকেটের উদীয়মান দলটি। ইমরান তাহির নেন চার উইকেট। এছাড়া ক্রিস মরিস তিনটি ও ফেলুকায়ো নেন দুটি উইকেট।

  •  
  •  

Leave a Reply